fbpx
নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

ইমরান খানের থেকেও দেশের জন্য বেশি বিপদজনক মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়: দিলীপ ঘোষ

পাকিস্তানের বালাকোট হামলার পর যেভাবে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরোধিতা করে বিরোধীরা একের পর এক সন্দেহ প্রকাশ করছেন তাতে বেশ ক্ষিপ্ত বায়ুসেনা প্রধান থেকে বিদেশ মন্ত্রক। বালাকোট হামলাকে দেশের সাফল্যকে বড় করে না দেখে ভোটের হাতিয়ার কেন বলা হচ্ছে এই বিষয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করছে। বালাকোট হামলার পর পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ঘটনা নিয়ে দ্বন্ধ প্রকাশ করেছেন। বালাকোটের এয়ার স্ট্রাইক ঘটনার প্রমানও চেয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দেশের সেনাদের সাফল্য নয় বরং জঙ্গীদের নিহতের সংখ্যা নিয়ে তিনি বেশ সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন। আর এতেই বিজেপি সরকারের রাগ আরও বেড়ে গেছে। তাই মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যকে বিরোধিতা করেছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের থেকেও বেশি বিপজ্জনক- এই ভাষাতেই সরাসরি তোপ দাগেন তিনি।

একটি সাংবাদিক বৈঠকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বালাকোট হামলা নিয়ে  মুখ্যমন্ত্রী ও কেজরিয়ালের বিরোধিতার প্রসঙ্গ টেনে এনে জানিয়েছেন তাঁদের সন্দিহান পাকিস্তানের কাজ সহজ করে দিচ্ছিল। একই সঙ্গে এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন একজোট হওয়ার বদলে দেশের ভালো কাজের জন্য মুখ্যমন্ত্রী যেভাবে দ্বিচারিতা দেখিয়েছেন তাতে দেশের জন্য খুবই দুর্ভাগ্যের বিষয়। বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালু প্রসাদ যাদবের প্রসঙ্গ টেনে এনে দিলীপ ঘোষ আরও জানিয়েছেন লালু প্রসাদ যাদব পাকিস্তানের খুবই কাছের হওয়ার তাঁর পরিস্থিতির সঙ্গেও মুখ্যমন্ত্রীর তুলনা করেন।

আসলে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনকে ঘিরে রাজ্যে এখন অচলাবস্থার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। লোকসভা নির্বাচনে ৪২-এ ৪২ জিততে মরিয়া রাজ্য সরকার। এমতাবস্থায় পাকিস্তানের বালাকোটে হামলা করে দেশের বায়ুসেনারা যে সাফল্য পেয়েছেন তাতে কেন্দ্রীয় সরকার একটা বড় দাঁও মেরেছেন। এতে চিন্তিত রাজ্য। তাই ভোটবাক্সে লড়াইয়ে যদি কেন্দ্রীয় সরকার এগিয়ে যায় তাহলে মুখ্যমন্ত্রীর চিন্তা আরও বাড়বে। তাই বালাকোট হামলার পর একের পর এক প্রশ্নে জর্জরিত করা হচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকারকে, এমনটাই দাবি বিজেপি শিবিরের। সোমবার একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে বিজেপি মোর্চা নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রীর বিরোধিতাকে তীব্র ভাষায় আক্রমন করেছেন। দেশের সাফল্যে তিনি ভয় পেয়েছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বিজেপি সরকার যেভাবে ভারতের পুরানো যুদ্ধবিমান ব্যবহার করে সাফল্য পেয়েছে তা সত্যিই প্রশংসনীয় বলেও মন্তব্য করেন নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত, বালাকোটে জইশ জঙ্গী প্রশিক্ষণ শিবিরে হামলার সময় ঘটনায় ঠিক কতজন মারা গেছেন এই নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীর এই প্রশ্নের জবাবে বায়ুসেনা প্রধান বিএস ধাওয়ান জানিয়েছেন লাশ গোনা সোনাদের কাজ নয় বলে সরাসরি জবাব দেন।

Close