fbpx
আন্তর্জাতিকনতুন খবরমতামতরাজনৈতিক

এই হিন্দু সংসদ আমেরিকার সাংসদে গীতা পাঠ করে শপথ নিলেন। আমেরিকার আসন্ন নির্বাচনে ইনি নিতে চলেছেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।

বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী এবং ধনী দেশ হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বা আমেরিকা। এবার সেই আমেরিকার একটি রাজনৈতিক বিষয়ক খবর সকলের সামনে চলে এল। এই মুহূর্তে আমেরিকার রাজনীতিতে চরম উত্তেজনক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। কারন আমেরিকার মহিলা হিন্দু সংসদ এক বিশেষ ঘোষনা করে দিয়েছেন। এই হিন্দু সংসদের নাম তলসী গাবার্ড। ইনি ২০১৩ সাল থেকে আমেরিকার এই একই পদে রয়েছেন। এই মুহুর্তে ইনি বেশ পারদর্শী হয়ে গিয়েছেন আমেরিকার রাজনীতিতে। আসুন বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

ইনি জন্মগ্রহণ করেন আমেরিকার সামোয়ায়। সেই সময়কাল ছিল ১৯৮১ সাল ১২ ই এপ্রিল। আর এই তলসী গাবার্ডই ছিল আমেরিকার প্রথম হিন্দু সংসদ। উনি ভারতের বংশধর হলেও জন্মের পর আমেরিকা কেই নিজের ঠিকানা করে ফেলেন। তুলসী গাবার্ডের পিতা হলেন মাইক গাবার্ড এবং মাতা ক্যারল গ্যাবার্ডের। ইনারা দুজনই ছিলেন ক্যাথলিক পরিবারের। কিন্তু বড় হয়ে হিন্দুধর্ম সম্ভন্ধে জেনে হিন্ধুধর্মের প্রতি আসক্ত হয়ে তুলসী গাবার্ড হিন্ধুধর্ম গ্রহন করেন।

তুলসী গাবার্ডের পিতা মাইক গাবার্ড ছিলেন একজন রাজনৈতিক নেতা। তাই ছোট থেকেই তুলসী গাবার্ডের মধ্যে একজন রাজনৈতিকের ছায়া ছিল। এছাড়াও খুব কম বয়সে এই তুলসী গাবার্ড সমাজসেবার সাথে যুক্ত ছিলেন। “সুস্থ গীত বন্ধন” নামে উনি একটি এনজিও চালাতেন। উনি মাত্র ২১ বছর বয়সে রাজনীতিতে প্রবেশ করেন এবং সবচেয়ে কম বয়সী সংসদ হিসাবে আমেরিকার রাজনীতিতে রেকর্ড করেন। বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে যে, ভোটে জয়লাভ করার পর সংসদ হিসাবে শপথ নেওয়া সময় উনি আমেরিকার প্রথা নয় বরং ভারতের হিন্দুত্ববাদী প্রথা মেনে উনি গীতা হাতে নিয়ে সংসদে শপথ গ্রহণ করেন।

তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, এই তুলসী গাবার্ডের জনপ্রিয়তা তখন বহুগুন বেড়ে গিয়েছিল যখন উনি আমেরিকার সেনাবাহিনীতে যোগদান করেছিলেন।

এছাড়াও জানা গিয়েছে যে, ২০২০ সালে আমেরিকার নির্বাচনে একমাত্র হিন্দু সংসদ হিসাবে ইনি নির্বাচনে বিশেষ ভুমিকা গ্রহণ করবেন।
#অগ্নিপুত্র

Open

Close