কেন্দ্রীয় সরকার দ্বারা জনগণের কল্যাণের কথা মাথায় রেখে জারি করা হয়েছে পাঁচটি নতুন নিয়ম। একজন ভারতীয় হিসাবে প্রত্যেকেরই যেগুলি জানা অত্যন্ত আবশ্যিক। তাই আপনাদের সুবিধার জন্য এই পাঁচটি নতুন নিয়ম তুলে ধরা হল।

১) আজকাল পারিবারিক কাজের জন্য বাড়ীতে যে রান্নার গ্যাসগুলি ব্যবহার করা হয়,সেগুলিতে নানা সময় লিক থাকার কারনে অঘটন ঘটে যায়। এর ফলে মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে। এই বিষয়কে উপেক্ষার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার আনতে চলেছে এন্টি ব্লাস্ট সিলিন্ডার। যার দ্বারা অঘটন এড়ানো সম্ভব হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

২) হেলমেট প্রত্যেক বাইক আরোহীদের কাছে একটি প্রয়োজনীয় বস্তু। হেলমেট ছাড়া বাইক চালানোর সময় ট্রাফিক পুলিশের সামনে পড়লে জরিমানা দরুন মোটা টাকা বের করতে হয় সাধারণ মানুষ কে। কিন্তু নুতন নিয়ম অনুযায়ী এবার থেকে হেলমেট থাকলেও ট্রাফিক পুলিশ আপনাকে আঁটকাতে পারে। ১লা জানুয়ারী ২০১৯ সাল থেকে আপনার পুরোনো হেলমেটটি আর কোনো কাজে লাগবে না। আপনার হেলমেটটি আইএসআই (ISI)সার্টিফাইড হতে হবে। হেলমেট গুলির ওজন ১.২কিলোগ্রাম হতে হবে যা বর্তমান ১.৫ কিলোগ্রাম ওজনের। আইএসআই (ISI) মার্ক বিহীন হেলমেট ব্যবহার করা হলে বা বিক্রী করা হলে, তাদের বিরুদ্ধে মামলা করতে পারে সরকার। অথবা মোটা অঙ্কের জরিমানা ব্যয় করতে হতে পারে।

৩) কেন্দ্রীয় সরকারের নুতন আইন অনুযায়ী অনলাইন শপিং প্রেমীদের কাছে দুঃসংবাদ এল। কোর্টের অর্ডার অনুযায়ী অনলাইন প্রতিষ্ঠানগুলি যেমন : আমাজন, ফ্লিপকার্ট এর মতন বড় সংস্থা, যেগুলি প্রায় দিনই বড় বড় ছাড় দিয়ে মানুষকে তাদের দিকে আকর্ষণ করে। এবার থেকে সেই সংস্থা গুলি আর বড় পরিমানে ছাড় বা সেল দিতে পারবে না।

৪) আর সবচেয়ে আকর্ষণীয় হল কেন্দ্রীয় সরকারের নুতন আইন অনুযায়ী ২০১৯ সাল থেকে দেশজুড়ে চালু হতে চলেছে প্রিপের্ড মিটার। অর্থাৎ এবার থেকে আপনি ঠিক যে পরিমাণ টাকার রিচার্য করাবেন সেই পরিমান ইলেকট্রিক ব্যবহার করতে পারবেন।

৫) নতুন বছরে প্রায় ৫০ শতাংশ ATM কার্ড বন্ধ হতে চলেছে। RBI থেকে জানানো হয়েছে পুরোনো এবং যে সমস্ত ATM কার্ডে চিপ লাগানো নেই নিরাপত্তার কথা ভেবে সেগুলি বাতিল করা হবে। চুরিকে উপেক্ষা করার জন্যই এই পদক্ষেপ নিতে চলেছে দেশের ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।