বাংলার ঐতিহ্য দুর্গাপূজা বন্ধ করতে চাইছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এমনই দাবি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এবার নিজেদের আয় বাড়ানোর জন্য রাজ্যের পুজো কমিটি গুলির দিকে নজর দিল আয়কর দপ্তর। তারা নিজেদের আয় বাড়ানোর জন্য অর্থাৎ বিগ বাজেট ঘোষণা করার জন্য ইতিমধ্যেই শহরের 400 পূজা কমিটি কে আয়করের তরফে চিঠি পাঠানোর ঘোষণা করে দেওয়া হয়েছে। তার মধ্যে 40 টি পূজা কমিটিকে ইতিমধ্যে চিঠি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে, বাকি রয়েছে আরও 360 টি, তাদের কেউ চিঠি পাঠানো হবে খুব দ্রুত এমনই খবর সামনে এসেছে।

আয়কর দপ্তর এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে এই রাজ্যের প্রায় চার হাজারেরও বেশি পূজা কমিটি রয়েছে কিন্তু বেছে বেছে এই চল্লিশটি পূজা কমিটিকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। কারণ তারা তাদের আয় এবং ব্যয়ের নিয়ে যে তথ্য আয়কর দপ্তর কে দিয়েছিল তাদের সেই তথ্যে যথেষ্ট সন্তুষ্ট হতে পারেনি আয়কর আধিকারিকরা। এই কারণে তাদেরকে আয় এবং ব্যয়ের হিসাব চেয়ে আলাদা ভাবে নোটিশ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আর এর ফলে রাজ্যের বিগ বাজেটের পুজো কমিটি গুলি নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তারা জানিয়েছেন বেছে বেছে কেন আমাদের কে ধরা হচ্ছে? ধরতে হলে সমস্ত পুজো কমিটি গুলিকে ধরা হোক। কারণ এই রাজ্যের বড় বড় যে পূজাগুলি হয় তারা সকলেই অনেক অনেক খরচ করে। এছাড়াও তারা জানিয়েছেন যে রাজ্যের গৌরব এবং দেশের গৌরব হিসাবে দুর্গা পুজোকে আমরা আন্তর্জাতিক স্থানে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি। এর জন্য রাজ্য সরকার আমাদের বিভিন্নভাবে কর ছাড় দিয়ে সাহায্য করেছেন আর এমন পরিস্থিতিতে কেন্দ্র সরকারের এই চাপ মনে হচ্ছে আমাদের উন্নয়নের কেউ পেছন থেকে পা ধরে টানছে।

আর এর ভিত্তিতেই এরদিন বারাসাত এর যাত্রা মঞ্চ থেকে কেন্দ্র সরকারকে তুলোধোনা করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানিয়েছেন যে একটা পুজো কমিটিও যাবেন না তাদের ডাকে সাড়া দিয়ে। তারা যদি চায় পুজো বন্ধ করতে তাহলে সবাই একজোট হয়ে রুখে দাঁড়ান।
এছাড়াও তিনি জানিয়েছেন যে রাজ্যের এই ঐতিহ্য দূর্গা উৎসব বন্ধ করার চেষ্টা করলে আমরা ছেড়ে কথা বলবো না আমরা প্রতিটি কথার হিসাব নিয়ে ছাড়বো।
#অগ্নিপুত্র