ফের অস্বস্তি বাড়ল রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের উপর। এবার চাপের কারণ “ব্রিগেড ক্যালঙ্কারী।” এতদিন নারদা , সারদা এবং টেট ক্যালঙ্কারী ছিল রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে এবার সেই তালিকায় নাম যুক্ত হল “ব্রিগেড ক্যালঙ্কারী।”

ব্রিগেডের আগে থেকেই বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন উঠতে শুরু হয়ে যায় যে, রাজ্যের বিভিন্ন শহরে কয়েক ইঞ্চি পর পর কোথাও পিসি আবার কোথাও ভাইপোর ছবিযুক্ত যে ব্যানার লাগানো হয়েছিল সেই টাকা কোথা থেকে এল? তাছাড়াও ব্রিগেডে উপস্থিত সকল মানুষকে যে ডিম ভাত খাওয়ানো হয়েছিল সেই টাকাও বা কোথা থেকে এল?

এইদিন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ দাবি করেছেন যে, ব্রিগেডে যে ১০০ কোটি টাকা খরচ করে মচ্ছব করা হয়েছে সেটা কোথায় পেল রাজ্য সরকার। আরেক ধাপ এগিয়ে রাজ্য  বিজেপির আরেক নেতা মুকুল রায় দাবি করেছেন যে, রাজ্যের আয়ের থেকে এত বেশি পরিমাণে টাকা খরচ করার জন্য টাকা কোথা থেকে এল রাজ্য সরকারের কাছে। উনি এইদিন নির্বাচন কমিশনের কাছে এই ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ জানিয়ে দাবি তুলেছেন যাতে সিবিআই এর হাতে এই তদন্ত ভার তুলে দেওয়া হয়।
আর যদি মুকুল রায়ের এই অভিযোগ সত্যি হয় তাহলে খুব তাড়াতাড়ি অর্থাৎ লোকসভা নির্বাচনের আগেই রাজ্য সরকার ফের একবার ফাঁসতে চলেছে।
#অগ্নিপুত্র