এই মুহূর্তে জেলায় জেলায় বিজেপি করে চলেছে সভা। এই সভা গুলি করা হচ্ছে মূলত লোকসভা নির্বাচনের প্রচার হিসাবে। আর প্রত্যেকটি সভা থেকে রাজ্য সরকার কে একের পর এক চ্যালেঞ্জে ছুঁড়ে দিচ্ছেন বিজেপি নেতানেত্রীরা, যাদের মধ্যে অন্যতম হল মুকুল রায়। আর এই সব চ্যালেঞ্জের মাঝেই মুকুল রায় তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে করে দিলেন এক বিরাট চ্যালেঞ্জ। উনি এইদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে চ্যালেঞ্জ করে বললেন বাংলা থেকে যদি তৃণমূল কংগ্রেস ২০ টির বেশি আসন পায় আগামী লোকসভা নির্বাচনে তাহলে মুকুল বাবু রাজনীতি ছেড়ে দেবেন।

এছাড়াও এইদিন মুকুল বাবু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে তার ব্রিগেড সভা নিয়ে কটাক্ষ করে বলেন যে তৃণমূল কংগ্রেস অনেক চেষ্টা করেও মাঠ ভরাতে পারে নি। পয়সার লোভ দেখিয়ে ডিম ভাত খাইয়েও লোক জড় করতে অক্ষম হয়েছেন। তাই বাইরে থেকে অনেক নেতামন্ত্রীদের এনে মঞ্চ ভরিয়ে ছিলেন। কিন্তু সেখানেও উনি পুরোপুরি ভাবে ফ্লপ কারণ কোনো নেতাই এইদিন প্রধানমন্ত্রীর পদপ্রার্থী হিসেবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম বলেন নি।

এছাড়াও মুকুল বাবু সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন তৃনমূলের দিকে। তিনি বলেছেন যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সারা দেশজুড়ে যেরকম জনপ্রিয়তা রয়েছে তার এক শতাংশের ধারে কাছে নেই মুখ্যমন্ত্রীর জনপ্রিয়তা। তাই তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে বলেছেন যে পশ্চিমবঙ্গের বাইরে যে কোন আসনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জিতে দেখাক তাহলে আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মেনে নেব। এবং সেই সাথে উনি বলেছেন রাজনীতি পরীক্ষায় আমি অনেক বেশি অভিজ্ঞতা সম্পন্ন এবং পশ্চিমবঙ্গ রাজনীতি আমার ভালভাবেই চেনা। তাই এখন বাংলা মানুষের অওয়াজ শুনে বোঝা যাচ্ছে যে তৃণমূলের দিন এবার শেষ। বাংলার মানুষ এখন পরিবর্তন চাইছেন।
#অগ্নিপুত্র