হাইকোর্টের রায় ফের একবার দিলীপ ঘোষের পক্ষে। দিলীপ ঘোষের মুখের হাসি দেখে হতাশ বিরোধীরা।

অশোক সরকার যিনি একজন প্রাপ্তণ বিজেপি নেতা উনি হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে। উনার দাবি ছিল নির্বাচন কমিশনের কাছে নিজের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে মিথ্যা তথ্য উল্লেখ করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। হাইকোর্টে এই মামলাটি অনেকদিন ধরে ঝুলে থাকার পরে অবশেষে বিচারপতি এইদিন মামলাটি খারিজ করে দেন। উনি মামলাটি খারিজ করে জানান যে, এইভাবে কোনো ব্যক্তির শিক্ষাগত যোগ্যতা জনস্বার্থে  বিষয় হতে পারে না। এর ফলে এইদিন সমস্ত দিলীপ বিরোধীদের মুখ একেবারে বন্ধ হয়ে গেছে। তারা দিলীপ বাবু কে অপমান করার আশা করে ফের একবার হতাশ হয়ে বাড়ি ফিরলেন।

অশোক সরকার দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা করে যাচ্ছেন যাতে দিলীপ ঘোষ কে ক্ষমতা থেকে সরানো যায়। আর সেই জন্যই এই মামলা করা হয়েছিল দিলীপ বাবু কে জব্দ করতে। কিন্তু উনার সেই আশায় এইদিন জল ঢেলে দিল হাইকোর্ট। কিন্তু উনি জানিয়েছেন যে, আমি হাল ছাড়তে রাজি নয়। এই রায়ের বিরুদ্ধে আবার আবেদন করা হবে উনি বলে জানিয়েছেন।

এই ব্যাপারে মামলাকারী দাবি করেছেন যে, ভোট দেওয়ার আগে যাকে ভোট দেওয়া হচ্ছে তার ব্যাপারে সঠিক ভাবে জেনে নেওয়া উচিৎ। কারণ উনি জয়ী হলে উনার হাতেই নির্ভর করছে রাজ্যের ভবিষ্যত। কিন্তু তার কোনো কথা শুনতে রাজি নন হাইকোর্ট। হাইকোর্ট স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দিয়েছেন যে, কারুর শিক্ষ্যাগত নিয়ে প্রশ্ন তুলে এইভাবে মামলা হতে পারে না। তাই মামলাটি খারিজ করে দেওয়া হয় হাইকোর্টের তরফে।
#অগ্নিপুত্র