দেশ

৩৭০ ধারা বিলুপ্ত হওয়ার পর কাশ্মীরের মসজিদে নামাজ না পড়ার নিষেধাজ্ঞা জারি

মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ কাশ্মীরঃ ভারত সরকার জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার পর প্রথম শুক্রবার শ্রীনগরে ১৮ হাজার ইসলাম ধর্মাবলম্বী মানুষ নামাজ পড়েন। জম্মু কাশ্মীরের প্রশাসন এই কথা জানায়। আরেকদিকে বডগাঁও এ ৭ হাজার ৫০০ , অনন্তনাগে ১১ হাজার  মানুষ নামাজ পড়ার জন্য মসজিদে যান। শুক্রবার সন্ধ্যে পর্যন্ত কুলগাঁও আর সোপিয়ায় ৪ হাজার মানুষ নামাজ পড়েছেন।

জম্মুতে নামাজ পড়ার জন্য মসজিদে যাওয়া মানুষদের মধ্যে পুরষদের থেকে হিজাব পড়া মহিলার সংখ্যা বেশি ছিল। লালা বাজারের বাসিন্দা নুর জাহান জানান, ‘নামাজ পড়া কেউ আটকাতে পারবেনা।” নুর জাহান এটাও বলেন যে, আমাদের নামাজ পড়া থেকে কোন সেনাই আটকায়নি, বরঞ্চ তাঁরা আমদের সুরক্ষা দিয়েছিল।

প্রশাসন জানায় যে, নামাজ পড়ার জন্য রাজ্যের ছোট ছোট মসজিদ গুলোকে অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। যদিও বড়বড় মসজিদ যেমন হজরতবাই আর জামিয়া মসজিদে নামাজ পড়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল না। আর এর কারণ হল, অনেক অনেক মানুষ নামাজ পড়ার জন্য সেখানে জড় হয়, সুরক্ষার খাতিরে তাঁদের সেখানে নামাজ পড়ায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল।

জম্মু কাশ্মীরে সেলস ডিপার্টমেন্টে কাজ করা জাকির জানায়, ‘বড় গাড়ি, চার চাকা গাড়ি আর দুই চাকার কোন বাহনকেই মসজিদের বাইরে দাঁড়ানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছিল না। আমি প্রথমে মা কে নিয়ে সেখানে যাই, পড়ে আবার আমার ছেলেকে নিয়ে সেখানে যাই। তবে সেখানে মোতায়েন সেনা যথেষ্ট বন্ধুত্বপূর্ণ মনোভাব দেখিয়েছে।

Close