দেশ

কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা রদের প্রতিবাদে, সীমান্ত থেকে বাথরুমের দরজা চুরি করে পালাতে গিয়ে ধরা পড়ল বাংলাদেশি যুবক

মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ আপনারা সবাই জানেন যে, গত সোমবার কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নিয়েছে ভারত সরকার। এরপর মঙ্গলবার লোকসভাতেও এই বিল পাশ করিয়ে নিয়েছে মোদী সরকার। কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার পর রেগে লাল হয়ে গেছে পাকিস্তান। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এর জন্য ভারতে আরেকটি পুলওয়ামা হামলার হুমকিও দেন। যদিও ভারত পাকিস্তান আর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর কোন হুমকিই গ্রাহ্য করছে না। আরেকদিকে শুধু পাকিস্তান নয়, এই দেশে বিজেপি বিরোধী দল গুলোও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছে।

প্রতীকী ছবি

দেশের কমিউনিস্ট পার্টি মোদী সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ৭ই আগস্ট গোটা ভারত বন্ধ ডেকেছিল। কিন্তু সুষমা স্বরাজের মৃত্যুর কারণে তাঁরা এই কর্মসূচী পিছিয়ে দেয়। আরেকদিকে কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার পর যেমন আতঙ্কিত পাকিস্তান। তেমনই ভারতের আরেকটি প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশও চরম আতঙ্কিত। বাংলাদেশে ইসলামি আন্দোলনের নামে রোজই ভারতের বিরুদ্ধে বিষ উগড়ে দিচ্ছে ইসলামিক সংগঠন গুলো। রীতিমত তাঁরা জেহাদের হুমকিও দিচ্ছে ভারতকে।

কিন্তু এর মধ্যে আরেক অবাক করা কাণ্ড ঘটে গেলো ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে। ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে এক বাংলাদেশি যুবক কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা রদ করার প্রতিবাদে সীমান্তের এক ভারতীয়র বাড়ি থেকে বাথরুমের দরজা চুরি করে নিয়ে পালায়। কিন্তু চুরি করে বেশিদূর যেতে পারেনি ওই যুবক। অবশেষে গ্রামবাসীর হাতে ধরা পড়ে বেধড়ক মারও খায়। পরে বিএসএফ এর এক জওয়ান এসে ওই যুবককে উদ্ধার করে গ্রামবাসীদের হাত থেকে।

জিজ্ঞাসবাদের পর জানা যায় ওই যুবকের বাড়ি বাংলাদেশের হিলি সীমান্ত দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর উপজেলায়। ওই যুবকের নাম শেখ হাসিবুল। সে কাশ্মীর থেকে ৩৭০ এবং ৩৫-এ ধারা তুলে নেওয়ার জন্য এই কাজ করেছে বলে জানায়। তাঁর কাছে জিজ্ঞাসাবাদ করে আরও জানা যায় যে, শুধু সেই না আরও কয়েকজন তাঁর সাথে যুক্ত আছে। তবে তাঁদের ধরতে পারেনি গ্রামবাসীরা।

Close