‘আমি আমার মসজিদ ফেরত চাই”, ট্যুইটারে বাবরি মসজিদের দাবিতে পোস্ট ওয়াইসির

0
47

মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ অযোধ্যা (ayodhya) মামলায় সুপ্রিম কোর্টের অতিহাসিক রায়ের পর অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন (AIMIM) এর প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি (Asaduddin Owaisi) এর আরও একটি বয়ান সামনে এলো। এবার উনি ট্যুইট করে লেখেন, ‘আমি আমার মসজিদ ফেরত চাই”। ৯ ই নভেম্বর রায়দানের পর ওয়াইসি বলেছিলেন, মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডের মতো আমিও সিদ্ধান্তে সহমত নই। সুপ্রিম কোর্টের ও ভুল হতে পারে। যারা বাবরি মসজিদ ভেঙেছিল, তাঁদের ট্রাস্ট বানিয়ে রাম মন্দির বানানোর কাজ দেওয়া হয়েছে।

আসাদউদ্দিন ওয়াইসি বলেছিলেন যে, যদি ওখানে মসজিদ থাকত, তাহলে শীর্ষ আদালত কি সিদ্ধান্ত নিত? এটা আইনের বিরুদ্ধে। বাবরি মসজিদ যদি না ভাঙা হত, তাহলে সিদ্ধান্ত কি নেওয়া হত? আমি ভারতের সংবিধানে বিশ্বাস করি। আমরা আমাদের অধিকারের জন্য লড়েছি। পাঁচ একর জমির খয়রাতি চাইনা আমরা। মুসলিমরা গরিব, কিন্তু আমরা মসজিদ বানানোর জন্য পয়সা জোগাড় করতে পারি।

 

সিদ্ধান্তের পর ওয়াইসি বলেছিলেন যে, আমাদের দেওয়া পাঁচ একর জমির অফার খারিজ করতে হবে। অয়াসি অভিযোগ করে বলেছিলেন যে, দেশ এখন হিন্দু রাষ্ট্রের দিকে ঝুঁকছে। রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সঙ্ঘ (আরএসএস) অযোধ্যা থেকে হিন্দু রাষ্ট্র বানানোর কাজ শুরু করেছে। আর এনআরসি এবং সিটিজেনশিপ বিল দিয়ে শেষ করবে।

AIMIM এর মুখপাত্র ওয়ারিস পাঠান বলেন, সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তকে সন্মান জানাই। আমরা পণে দেওয়া পাঁচ একর জমি চাইনা। আমাদের লড়াই মসজিদ নিয়ে ছিল। পাঁচ একর জমির জন্য না। যদি আমি সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত নিয়ে খুশি না হই, তাহলে আমাদের দেশের সংবিধান আমাকে পয়েন্ট পেশ করার সুযোগ দেয়। যদি মুসলিম ল বোর্ড চায় যে, আমাদের রিভিউ দরকার, তাহলে আমরা তাঁদের সাথে আছি। এটা আমদের অধিকারের লড়াই আর ৩০ বছর ধরে আমরা এর জন্য লড়াই করে যাচ্ছি। আমরা আমদের আইনি অধিকার চাইছিলাম, যেটা আমরা পাইনি।