fbpx
আন্তর্জাতিকনতুন খবর

পনেরো জন পাক সেনাকে উড়িয়ে দিল বালোচরা, ভারতের সাথে মিলেমিশে পাকিস্তানকে ধ্বংস করার ঘোষণা বালোচদের।

পাকিস্থানের অবস্থা ক্রমশই শোচনীয় হয়ে উঠছে৷ এতদিন ধরে জোর করে যে বেলুচিস্তানকে নিজেদের দখলে রেখেছিল এবার সেই বালোচিস্তানের বাসিন্দা অর্থাৎ বালোচরা পাকিস্থানের বিরুদ্ধে সোচ্চার হল৷ পাকিস্থানের সবথেকে বড় রাজ্য বালোচিস্তান৷ পাকিস্থান সর্বদাই সেখানকার বাসিন্দাদের অত্যাচার করে ইচ্ছেমতো৷ নিজেদের আয়ত্তে আনতে বালোচদের ওপর নির্মম অত্যাচারের সত্ত্বেও এতদিন মুখ বন্ধ করেছিল তারা৷ কিন্তু এবার পাশে পেয়েছে ভারতকে৷ তাই এতদিনের বদলা নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে বালোচরা৷
বালোচিস্তানকে এতদিন অবধি নিজেদের দখলে রাখতে পাকিস্থান তাঁদের স্বাধীনতা কায়েম করার থেকে বঞ্চিত রেখেছিল৷ বারবার বালোচদের সোচ্চারে মাথা ঘামায়নি পাকিস্তান৷ বালাকোটের মতো বালোচিস্তানেও জঙ্গী ঘাঁটি গড়েছিল পাকিস্থান৷ এখন সেই ঘাঁটি ইরানের লক্ষ্য হয়ে উঠেছে৷ গোটা পাকিস্থানের নির্মমতায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে পাকিস্থান৷

কিন্তু পাকিস্থানের ওপর ভারতীয় মিরাজ বিমানের হামলায় বিপুল সংখ্যায় জঙ্গী মারা যাওয়ায় এবার মুখ খোলার সাহস পেয়েছে বালোচিস্তানবাসীরা৷ ভারতকে পাকিস্থান নিকেশ করার জন্য বালোচ নেতারা আবেদন জানাচ্ছে পাশাপাশি, সামাজিক মাধ্যমে বালোচদের একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে যেটিতে দেখা গেছে তাদের নিশানায় রয়েছে পাকিস্থান৷
সামাজিক মাধ্যমে বালোচদের এই ভিডিও দেখে এটা স্পষ্ট্য পাকিস্থান নিপাত করতে এবার বালোচরা এগিয়ে আসছেই৷ ভারতের কাছে পাকিস্থানের শেষ চাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সন্ত্রাসবাদার বিরুদ্ধে ভারতের পাশে বালোচরা আছে বলেও ঘোষনা করেছে৷ কার্যত পাকিস্থানকে ধ্বংস করতে মরিয়া বালোচরা৷ প্রথমে চিন তারপর ইরান এবার বালোচরা৷ পাকিস্থানের পার্শ্ববর্তী সমস্ত হাতিয়ারই এখন পাকিস্থানকে বিদায় জানিয়েছে৷ এতদিন যারা পাকিস্থানের ভয়ে মুখ খুলতে পারত না এবং পাকিস্থান যাদের নিজেদের রাজ্য বলে ঘোষনা করে আসছিল সেই বালোচিস্তান ভারতের মিরাজ বিমানের হামলার জন্যই এগিয়ে আসছে৷

যে চিন জেট ফাইটার দিয়ে সাহায্য করেছিল সেই চিনও ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছে৷ আবার ইরানের জঙ্গী হানার বদলা নিতে গিয়ে ইরানও পাকিস্থানে ব্যালাস্টিক মিসাইল ছোঁড়ার পরিকল্পনা নিচ্ছে৷ তাই চাপের থেকেও প্রচন্ড আতঙ্কে রয়েছে পাকিস্থান৷ ইমরানের ভারতকে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়ার হুমকি কার্যত ধোপে টিকছে না বলেই মত ভারতের আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের৷ কারণ, যেভাবে চিন, ইরান ও বালোচিস্তান সড়ে দাঁড়িয়েছে এরপর হয়তো সীমা লঙ্ঘন নিয়ে আফগানিস্থানও পাকিস্থানের ওপর হামলা চালানোর সিদ্ধান্ত নেবে এবং ভারতের পাশে দাঁড়াবে৷ তাই পাকিস্থানের ভীত ক্রমশই দূর্বল হয়ে পড়বে৷ তবে ভারতের সঙ্গে পাকিস্থানের সাময়িক যুদ্ধ কি বড় যুদ্ধের আকার নিতে পারে, এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজছে গোটা বিশ্ব৷
বিষেজ্ঞরা মনে করছেন এই সব কিছুই সম্ভব হয়েছে শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জন্য।

কারণ এর আগে পাকিস্তান অনেকবার ভারতে জঙ্গি হামলা করলেও তার জবাব দেয় নি কংগ্রেস। কিন্তু এখন মোদী জামানায় পাকিস্তান কে উপযুক্ত জবাব দিচ্ছে ভারত সেই সাথে মোদীর কূটনৈতিক চালে পাকিস্তান তাদের একের পর এক বন্ধুকে হারাচ্ছে।

Open

Close