এবার থেকে ‘চে গুয়েভারা”র জায়গায় ‘ডোনাল্ড ট্রাম্প” এর ছবি বুকে নিয়ে ঘুরবে বামেরা

গতকাল থেকে Hydroxychloroquine ওষুধ নিয়ে বামেরা ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি বিকৃত করা ভাষণ নিয়ে প্রচার চালাচ্ছে যে, ডোনাল্ড ট্রাম্প নরেন্দ্র মোদীকে আমেরিকায় Hydroxychloroquine ওষুধ পাঠানোর জন্য হুমকি দিয়েছে।

এরপর কিছু বাম ঘেঁষা মিডিয়াও ফলাও করে জানিয়েছে যে, ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারত এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে Hydroxychloroquine ওষুধের জন্য হুমকি দিয়েছে। উনি এও বলেছেন যে, ওই ওষুধ না পাঠালে ভারতকে দেখে নেওয়া হবে।

এরপর থেকে বিভিন্ন বাম পেজ এবং গ্রুপে নরেন্দ্র মোদী এবং ভারতকে অপমান করে বামেরা একের পর এক মিথ্যে পোস্ট চালিয়ে যাচ্ছে। আজ ডোনাল্ড ট্রাম্প স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন যে, তিনি নরেন্দ্র মোদীর কাছে Hydroxychloroquine ওষুধ পাঠানোর জন্য আবেদন করেছিলেন মাত্র।

নরেন্দ্র মোদী আমেরিকা এবং মানবতার কথা ভেবে আমেরিকা সমেত বেশ কয়েকটি দেশে Hydroxychloroquine ওষুধ রপ্তানির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। যদিও এতেও বামেদের কিছু যায় আসেনা। এখন তাঁরা সোশ্যাল মিডিয়া এটা প্রচার করতে ব্যস্ত যে, ট্রাম্প ভারতকে হুমকি দিয়েছে আর নরেন্দ্র মোদীকেও।

তাঁদের অভিযোগ যদি সত্যিই হয়, তাহলেও তো ওদের এত ফলাও করে প্রচার করা বেআইনি। কারণ কোন দেশ যদি নিজের দেশকে হুমকি দেয়, তাহলে সেটাকে কটাক্ষ না করে, নিজের দেশে পাশে দাঁড়ানো উচিৎ। বামেরা কিন্তু ঠিক তাঁর উল্টো করছে।

বামেদের দেখে এটাই বোঝা যাচ্ছে যে, আগামী দিনে তাঁরা এই ভুয়ো প্রচারকে প্রমাণ করার জন্য নিজেদের বুকে চে গুয়েভারার ছবি বাদ দিয়ে ট্রাম্পের ছবি লাগিয়ে ঘুরবে।