করোনার রোগী, কিন্তু মরেনি করোনায়! নবান্নের এক ধমকে রাজ্যে কমে গেলো মৃতের সংখ্যা

গতকালই বিরোধী দলগুলি আশঙ্কা প্রকাশ করেছিল করোনায় মৃতের সংখ্যা নিয়ে ডেঙ্গুর মতোই নাটক হবে এবার। বলতে না বলতেই আচমকা ক্লাইমেক্সে পৌঁছে গেল সেই নাটক। করোনা মোকাবিলায় রাজ্য সরকার গঠিত ১২ সদস্যের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের দল আজ সাংবাদিক বৈঠক করে জানান, রাজ্যে এখন করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৫৩ এবং মৃতের সংখ্যা ৭ জন। যেই না প্রেস কনফারেন্সের খবর টিভির পর্দায় ভেসে উঠলো অমনি তুলকালাম শুরু হয়ে গেল নবান্নে। কিকরে সরকারের সঙ্গে কথা না বলে ডাক্তাররা মৃতের সংখ্যা বলে দিচ্ছে তাই নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয় নবান্নে। শেষ পর্য্ন্ত প্রবল চাপে তড়িঘড়ি সাংবাদিক বৈঠক করেন রাজ্যের মুখ্য সচিব, তারপর তিনি যে হিসেব পেশ করলেন সেটা নিয়ে এখন গোটা রাজ্য তোলপাড়।

রাজ্যের মুখ্যসচিব সাংবাদিক বৈঠকে এসেই জানিয়ে দেন, ডাক্তারদের দেওয়া তথ্যে গোলমাল আছে। এত আক্রান্ত হয়নি এবং এত লোক মারাও যায়নি। মৃতের সংখ্যা যা ছিল তাই আছে। একটাও বাড়েনি। স্বভাবতই প্রশ্ন তোলা হয়, গত ২৪ ঘন্টায় যে চার জন মারা গেল, তাদের করোনা হয়েছে বলে রিপোর্ট এসেছিল। এরপরেও কি করে সরকার বলে মৃতের সংখ্যা বাড়েনি। তখন মুখ্যসচিব যুক্তি দেন, যে চার জনের কথা বলা হচ্ছে, এদের করোনা ছিল এটা ঠিক, কিন্তু করোনা আক্রমনের জন্যই এদের মৃত্যু হয়েছে, এমনটি এখনও নিশ্চিত করা যায়নি, সুতরাং তাদের করোনায় মৃত বলা যাবে না। সুতরাং মৃতের সংখ্যা তিন ছিল ওটা তিনই আছে। একইসঙ্গে তিনি বলেন , আক্রান্তের সংখ্যাও ভুল বলা হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়েনি ওটা ৩৪ ই আছে। ৫৩ ডাক্তাররা বলেছে, কিন্তু ৩ জনের টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। রইলো ৫০ , এরমধ্যে ৯ জনের টেস্ট রিপোর্ট দ্বিতীয় দফায় নেগেটিভ এসেছে ফলে সংখ্যা হলো ৪১, এবার মৃত ৭ জনকে বাদ দিলে সংখ্যাটা দাঁড়ায় ৩৪ জন।

এই ঘটনার পরই আবার সরকারের সমালোচনায় সরব হয়েছে বিরোধীরা। তাদের অভিযোগ, ডেঙ্গুর ধাঁচেই মমতা এখন করোনার মোকাবিলা করতে চাইছেন। ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা গোপন করার জন্য যে অমানবিক এবং মিথ্যার আশ্রয় নিয়েছিল সরকার সেই একই পথে করোনাকে ধামাচাপা দেবার চেষ্টা শুরু হয়ে গেল বলে অভিযোগে সরব হলো বিজেপি সহ বিরোধী দলগুলি। তৃণমূলের প্রধান প্রতিপক্ষ বিজেপির অভিযোগ, করোনা নিয়ে প্রত্যক্ষ রাজনীতি শুরু করেছেন মমতা। তার নজর সমস্যার সমাধানের দিকে নয়, তার নজর এখন ২১-এর ভোটের দিকে। ফলে পদে পদে এমন কাজ করছেন যাতে সমস্যা আরও জটিল হতে শুরু করেছে।