যারা কাগজ দেখাবে না বলেছে, তাঁরা ননসেন্স, নেমকহারামঃ দিলীপ ঘোষ

এনআরসি, এনপিআর আর সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে সম্প্রতি বাংলার একাধিক তারকা একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন। তাতে সব্যসাচী চক্রবর্তী, স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়, রূপম ইসলাম, কঙ্কনা সেনশর্মা, সুমন মুখোপাধ্যায়রা স্পষ্ট বলেছেন, যাই হয়ে যাক না কেন কাগজ তাঁরা দেখাবেন না। বুধবার সাংবাদিক সম্মেলন করে তাঁদেরই ননসেন্স ও নেমকহারাম বলে তোপ দাগলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

এদিন দিলীপবাবু বলেন, “যাঁরা বলছেন কাগজ দেখাব না, তাঁরা ননসেন্স। নেমকহারাম।” তাঁর কথায়, “এঁরা কেউ বিমানবন্দরে গিয়ে বলবেন, কাগজ দেখাব না। ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করে দেবে। কেউ রেশন তুলতে গিয়ে বলবেন, কাগজ দেখাব না?” এখানেই থামেননি মেদিনীপুরের সাংসদ। তাঁর অভিযোগ, ওই ভিডিওতে এমন লোক আছেন, যিনি নাকি বিদেশে সোনার কাগজ দেখাতে না পেরে ধরা পড়েছিলেন।

দিল্লি থেকে উত্তরপ্রদেশ–একাধিক জায়গায় সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলনকারীরা স্লোগান দিয়েছে, ‘হম কাগজ নেহি দিখায়েঙ্গে।’ তারই বাংলা স্লোগান দিয়েছেন অভিনেতা, পরচালক, গায়করা। এদিন তাঁদেরই নিশানা করলেন দিলীপ ঘোষ। যদিও দিলীপের এই মন্তব্য নিয়ে ওই ভিডিওতে দেখা যাওয়া একাধিক তারকার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। কিন্তু কারওরই প্রতিক্রিয়া মেলেনি। প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেলে এই প্রতিবেদনেই আপডেট করা হবে।

রবিবার নদিয়ায় একটি জনসভায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেন দিলীপ ঘোষ। নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদের নামে গত ডিসেম্বর মাসে পশ্চিমবঙ্গে সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করা হয়। বিশেষ করে ট্রেন পোড়ানো হয়, প্ল্যাটফর্মে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। তার পরেও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যেপাধ্যায় “লাঠিচার্জের ও গুলি করার নির্দেশ” না দেওয়ার জন্যই তাঁকে নিশানা করেন দিলীপ ঘোষ।

এখানেই থামেননি দিলীপ ঘোষ। মেদিনীপুরের সাংসদ বলেন, “এসব কি তাদের বাপের সম্পত্তি? করদাতাদের টাকায় তৈরি এইসব সরকারি সম্পত্তি তারা নষ্ট করে কী ভাবে!” তিনি বলেন, “এইসব দেশবিরোধীদের উপর গুলি চালিয়ে ঠিক কাজই করেছে উত্তরপ্রদেশ, অসম ও কর্নাটক সরকার। এদের গুলি করাই উচিত।” দিলীপের এই মন্তব্য নিয়ে ব্বিস্তর জলঘোলা হয়েছে। এমনকি একাধিক এফআইআরো দায়ের হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। কিন্তু তাতেও যে তিনি দমছেন না তা বুঝিয়ে দিলেন এদিন। আক্রমণের ঝাঁঝ ধরে রাখলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি।