মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ গতকাল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা আসানসোলের বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়’র উপরে বাম ছাত্র সংগঠনের হামলা নিয়ে এবার মুখ খুললেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদ দিলীপ ঘোষ। কার্যত হুঁশিয়ারির সূরেই তিনি যাদবপুর থেকে কমিউনিস্টদের ঘাঁটি বিধ্বস্ত করার কথা বলেন। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘ সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করে যাদবপুর থেকে কমিউনিস্টদের ঘাঁটি ভাঙব।” তিনি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাম ছাত্র সংগঠনকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘হাত কীভাবে ভেঙে দিতে হয় আমরা জানি। আজ নয় কাল এটা হবেই।”

বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে সঙ্ঘের ছাত্র সংগঠন এবিভিপি এর একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে বাম ছাত্র ছাত্রী এবং নকশালদের আক্রমণের শিকার হন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। ওনার পদের কোনরকম সন্মান না করে ওনার জামার কলার টেনে ধরে ছিঁড়ে ফেলা হয়, এমনকি ওনাকে চর, কিল, ঘুষিও মারা হয়। এই ঘটনার পর সরব হয় গোটা দেশ। চারিদিকে উপচে পড়ে নিন্দার ঝড়।

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই নবান্ন অভিযান করে শিরোনামে আসতে চাইছিল বাম সংগঠন গুলো। কিন্তু সেই অভিযানে প্রত্যাশা মূলক সারা না পাওয়ায়, এবার আরও বড়সড় কিছু করে আবারও শিরোনামে আসার চেষ্টা চালাচ্ছিল বামেরা। আর সুপরিকল্পিত ভাবে যাদবপুরে বাবুল সুপ্রিয়’র উপর হামলা করে সেই অভিযান সফল করতে চাইছিল তাঁরা। কিন্তু বাবুল সুপ্রিয়কে মারধর করে পার পায়নি বামেরাও। সন্ধ্যে হতে না হতেই দুর্গাবাহিনী আর এবিভিপি এর সদস্যেরা বামেদের ঘাঁটি যাদবপুরে ঢুকে তাণ্ডব চালাতেই পিছিয়ে যায় বাম ছাত্র সংগঠন গুলো।

দিলীপ আরও বলেন, ”সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করে যাদবপুর থেকে কমিউনিস্টদের ঘাঁটি ভাঙব। দেশের মধ্যে রাষ্ট্রদ্রোহিতা চাই না। এমন ছাত্র চাই না। এটা গণতন্ত্র! এদের হাতে দেশকে সঁপে দেব। চিন্তা করতে কষ্ট হচ্ছে। কয়েকটা দুর্বত্তকে সমর্থন করছেন দুর্বুদ্ধিজীবীরা।”