পৃথিবীর আলো দেখতে না দেখতেই সব শেষ হয়ে গেল। সকলের নজর এড়িয়ে হাসপাতালে ঢুকে পড়ল রাস্তার কুকুর। একদম অপারেশন থিয়েটারে ঢুকে পড়ে কুকুরটি। সেখানে ছিল এক সদ্যোজাত শিশু, তাকে খুবলে শেষ করে দিল কুকুরটি, এত বড় ঘটনা ঘটে গেল অথচ হাসপাতালের নার্স, আয়া, ডাক্তার কারও নজরেই এল না। এমন মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী থাকল যোগীর রাজ্য উত্তরপ্রদেশ।

সোমবার সকালে উত্তরপ্রদেশের আবাস বিকা কলোনির আকাশ গঙ্গা হাসপাতালে এমন মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে। এদিন সকালে রবি কুমার নামে এক ব্যক্তি তাঁর স্ত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করেন। তিনি জানান, প্রথমে হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান, নর্মাল ডেলিভারি হবে।তবে কিছুক্ষণ পরে জানানো হয়, সিজার করাতে হবে। সেইজন্য স্ত্রী কাঞ্চনকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়। একঘণ্টা পর চিকিৎসক অপারেশন থিয়েটার থেকে বেরিয়ে জানান, অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে।

এরপর শিশুর মাকে ওয়ার্ডে নিয়ে গিয়ে শুয়ে দেওয়া হয়। অথচ সদ্যোজাতকে অপারেশন থিয়েটারেই রেখে দেওয়া হয়েছিল। সেসময় বাইরে বাচ্চার বাবা রবি কুমারকে অপেক্ষা করতে বলা হয়েছিল। প্রথম বাবা হওয়ার কারণে স্বভাবতই খুশী আর ধরে রাখতে পারছিলেন না রবি কুমার। কিন্তু  এ কী হয়ে গেল!!

আচমকা হাসপাতালের এক কর্মী চিৎকার করে বলে, অপারেশন থিয়েটারে কুকুর ঢুকে পড়েছে। সঙ্গে সঙ্গে রবি কুমার অপাকরেশন থিয়েটারে ঢুকে দেখে তাঁর সদ্যোজাত বাচ্চাটি রক্তাক্ত অবস্থায় মেঝেতে পড়ে রয়েছে। কুকুর খুবলে খেয়েছে ছোট্ট শরীরটাকে। এদিকে হাসপাতালের দাবি, শিশুটি মৃত অবস্থাতেই ছিল।OT  তে ঢুকে পড়েছিল কুকুরটি। ঘটনায় হাসপাতালের মালিক বিজয় প্যাটেল এবং কর্মীদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।