এবার ভারতে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে জোর দিলেন উপ-রাষ্ট্রপতি, আইন লাগু করা নিয়ে বাড়ল জল্পনা

ভারতে (India) ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু (M. Venkaiah Naidu)। তিনি বললেন, দেশে ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করতে রাজনৈতিক নেতাদের উদ্যোগ নিয়ে সাধারণ মানুষদের এই বিষয়ে অবগত করতে হবে।

সমাজ গঠনে উদ্যত হতে হবে
ভারতের ঐতিহ্যবাহী যৌথ পারিবারিক ব্যবস্থার কথাও তিনি উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘বর্তমান দিনে প্রবীণ নাগরিকদের প্রতি চরম অসম্মান এবং অবহেলা প্রদর্শিত হচ্ছে। অপরদিকে লিঙ্গ বৈষম্য সমাজের একটি প্রধান সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই সকল বিষয়ে জনগণকে সচেতন করে, সমাজ গঠনে উদ্যত হতে হবে’।

ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা উন্নয়নে বাঁধা দিচ্ছে
উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডু আরও জানিয়েছেন, ‘জনসংখ্যার ক্রমবর্ধমান বৃদ্ধির কারণে আজকের দিনে বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কাজ বাঁধা প্রাপ্ত হচ্ছে। এই জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে আজকের দিনে দেশের ২০ শতাংশ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নীচে রয়েছে এবং বেশিরভাগ মানুষের মধ্যে এখনও শিক্ষার আলো পৌঁছায়নি’।

প্রসঙ্গত, বিজেপি নেতা অশ্বিনী উপাধ্যায় (Ashwini Upadhyay) জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ নিয়ে (Population Control Act) সুপ্রিম কোর্টে আবেদন দাখিল করেছেন অনেক আগেই। ১৪ ই আগস্ট সে বিষয়ে শুনানি ছিল। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডাকে একটি চিঠি লখে তিনি জানিয়েছিলেন, ‘বর্তমান সময়ে জনসংখ্যা বিস্ফোরণ ভারতের জন্য বোমা বিস্ফোরণের থেকেও বেশি বিপদজনক। জনসংখ্যা বৃদ্ধি রুখতেই হবে’।