পশ্চিমবঙ্গ

রক্ষাকবচ তুলে নিলো হাইকোর্ট! যখন তখন গ্রেফতার হতে পারেন মমতা ঘনিষ্ঠ IPS অফিসার রাজীব কুমার

মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ সারদা চিটফান্ড মামলায় কলকাতা হাইকোর্ট প্রাক্তন কলকাতা পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে অস্বস্তিতে ফেলে, ওনার উপর থেকে গ্রেফতারির রক্ষা কবচ তুলে নিলো। এবার কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা (CBI) চাইলে যখন তখন রাজীব কুমারকে গ্রেফতার করতে পারে। হাইকোর্ট জানিয়েছে যে, উপযুক্ত প্রমাণ থাকলেই যেন গেফতার করা হয়। এই আদেশের পর সিবিআই টিমও সক্রিয় হয়ে গেছে। সিবিআই এর টিম ডেপুটি পুলিশ কমিশনারের অফিসে পৌঁছেছে, সেখানেই প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়ি।

দেশের সর্বোচ্চ আদালত ২০১৪ সালে সুদিপ্ত সেন এর কোম্পানি সারদা চিটফান্ড মামলা সমেত কয়েকটি দুর্নীতির দ্বায়ভার সিবিআই এর হাতে দেয়। এই দুর্নীতিতে আমানতকারীদের ২৫০০ কোটি টাকা ডুবে যায়। ২০১৩ সালে রাজীব কুমার যখন বিধাননগরের পুলিশ কমিশনার ছিলেন, তখন এই মামলা সামনে আসে। আর ওনাকে এই মামলার তদন্তের দ্বায়িত্ব দেওয়া হয়। রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে যে, উনি তদন্ত চলাকালীন সারদা মামলার সাথে জড়িত বেশ কয়েকটি প্রমাণ লোপাট করে দিয়ে তদন্তে প্রভাব ফেলেন।

সিবিআই এর হাতে সারদা মামলা আসার পর কলকাতা পুলিশের প্রাক্তন কমিশনার রাজীব কুমারকে চারবার তলব করেছিল সিবিআই। কিন্তু তিনি একবারও সিবিআই এর দফতরে হাজিরা দিতে গিয়েছিলেন না। এরপর সিবিআই এর কর্তারা রাজীব কুমারের বাড়িতে যেতেই, চাঞ্চল্য ছড়ায়।

মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে রাজীব কুমারের বাড়িতে যাওয়া সিবিআই এর কর্তাদের গেফতার করেছিল কলকাতা পুলিশ। তাঁদের হেনস্থাও করা হয়েছিল। পরে রাজীব কুমারের সমর্থনে ধর্নায় বসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পর উনি ধর্না তুলে নিয়েছিলেন। সুপ্রিম কোর্ট রাজীব কুমারকে সিবিআই এর সামনে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল। তখন থেকেই সারদা মামলার তদন্ত করার জন্য রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে কোমর বেঁধে নেমেছে সিবিআই।

Close