লকডাউনে মোদী সরকারের কাজে সন্তুষ্ট দেশের ৭৪% মানুষ, সমীক্ষায় উঠে এলো অবাক করা তথ্য

 গ্রামীণ ভারতের বড় জনসংখ্যা দেশে করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কেন্দ্রের মোদী সরকার আর রাজ্য সরকার গুলো দ্বারা নেওয়া পদক্ষেপে সন্তুষ্ট। যদিও, অনেকেই মহা সমস্যার সন্মুখিন হয়েছিলেন, কেউ কেউ নিজের গয়না, আসবাবপত্র, ফোন বিক্রি করে অথবা ঋণ নিতে বাধ্য হয়েছিল। এটি একটি রাষ্ট্রীয় স্তরের সমীক্ষায় সামনে এসেছে।

মিডিয়া সংস্থা ‘গাঁও কানেকশন” (Gaon Connection) দ্বারা গ্রামীণ ভারতে করা রাষ্ট্রীয় স্তরের সমীক্ষায়, লকডাউনে মোদী সরকার (Modi Sarkar) দ্বারা নেওয়া পদক্ষেপের সমর্থন করে ৩৭ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন যে, তাঁরা সরকারের কাজে খুবই সন্তুষ্ট। আরেকদিকে আরও ৩৭% মানুষ জানিয়েছেন তাঁরা সরকারের পদক্ষেপে মোটামুটি সন্তুষ্ট। মোট ৭৪ শতাংশ মানুষ লকডাউনে কেন্দ্র সরকার দ্বারা নেওয়া পদক্ষেপের সমর্থন করছেন।

সমিক্ষা অনুযায়ী, ৭৮ শতাংশ গ্রামীণরা জানিয়েছেন যে, তাঁরা রাজ্য সরকারের কাজে সন্তুষ্ট। Gaon Connection সোমবার সমীক্ষা রিপোর্ট জারি করেছে আর বলেছে ৩০ মে থেকে ১৬ জুলাই পর্যন্ত হওয়া এই সমীক্ষায় মোট ২৫ হাজার ৩৭১ জনের মতামত নেওয়া হয়ছে। তাঁদের অনুসারে সবাই নিজের বাড়ির প্রধান রোজগেরে মানুষ। এই সমীক্ষা পুরুষ প্রধান ছিল, আর ৮০% পুরুষ এই সমীক্ষায় অংশ নেয়।

নয়া দিল্লীর সেন্টার ফর স্টাডি অফ ডেভলপিং সোসাইটিজ (CSDS) এর টিম এই সমীক্ষার রুপরেখা তৈরি করে আর এর বিশ্লেষণ করে। CSDS এর প্রোফেসর সঞ্জয় কুমার বলেন, ‘ সমীক্ষার নীতি, স্বীকৃতি এবং স্যাম্পল সাইজের ভিত্তিতে আমি নিশ্চিতভাবেই বলতে পারি না যে এটিই এখনো পর্যন্ত করা ব্যাপক সমীক্ষা, যেটি গ্রামীণ ভারতে লকডাউনের প্রভাবের উপর ফোকাস করে।” সমীক্ষা অংশ নেওয়া ১৪% বেশি মানুষ জানিয়েছেন যে, তাঁরা মোদী সরকারের কাজে মোটামুটি সন্তুষ্ট। এবং ৭% মানুষ জানিয়েছেন যে তাঁরা মোদী সরকারের কাজে খুবই সন্তুষ্ট।

সমীক্ষা অনুযায়ী, দশ জনের মধ্যে সাতজন জানিয়েছেন যে, লকডাউনের মধ্যে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে মোটামুটি সন্তোষ জনক কাজ করেছে মোদী সরকার। আর ২৯ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন, সরকারের কাজে তাঁরা খুবই সন্তুষ্ট। আর ৪৪ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন যে তাঁরা সরকারের কাজে সন্তুষ্ট। আর প্রত্যেক চারজনের মধ্যে একজন বলেছেন লকডাউনের মধ্যে মোদী সরকার দ্বারা নেওয়া ব্যবস্থা খারাপ ছিল। তাঁদের ৯ শতাংশ মানুষ বলেছেন খুবই খারাপ। আর ১৪ শতাংশ বলেছেন মোটামুটি খারাপ।

৪০ শতাংশ মানুষ বলেছেন লকডাউন কড়া ছিল, আর ৩৮ শতাংশ মানুষ বলেছেন প্রয়োজনের থেকেও বেশি কঠোর ছিল লকডাউন। ১১ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন, লকডাউন আরও কঠোর হওয়ার দরকার ছিল। আর ৪ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন, লকডাউন করারই দরকার ছিল না।

Related Articles