ক্ষমা চেয়ে অসম সরকারকে মুচলেকা পাঠিয়ে অবাঙালিদের দালা’লদের মুখ বন্ধ করলেন বাংলার বাঘ গর্গ চট্টপাধ্যায়

অবশেষে ক্ষমা চাইলেন বাংলা পক্ষ সংগঠনের নেতা গর্গ চট্টপাধ্যায় (Garga Chatterjee)। আসামের জনতার কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করলেন তিনি। প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইলেন বিজেপি শাসিত আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়ালের কাছে। শুধু লিখিত ক্ষমাই না, একেবারে নমনীয় ভাবেই করে বিস্তারিত জানিয়ে, ক্ষমা প্রার্থনা করে সোশ্যাল মিডিয়ায় করলেন ভিডিও পোস্ট।

তিনি বলেন, “আমি আসামের জনতা, বিশেষত তাই হোম জনজাতির সকলের কাছে এবং মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়ালের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করছি। আমি মুখ্যমন্ত্রীর অফিসিয়াল ইমেইলের মাধ্যমে লিখিত পাঠিয়েছি।” আবার প্রকাশ্যে এই ভিডিও করেও ক্ষমা চাইলেন তিনি। বহুদিন ধরেই, আসাম সরকারের তাঁর বিরুদ্ধে মামলা, এবং গ্রেফতারির সম্ভাবনা তৈরি হতেই তিনি সক্রিয় ছিলেন না সোশ্যাল মিডিয়ায়। নিজেই এদিন বলেন, গত ১৯ জুন থেকে আমি সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু পোষ্ট করিনি। কারণ হিসেবে গর্গ জানান, তাঁর ৭৪ বছরের বাবার ক্যান্সার ধরা পড়েছে, তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন, ৭০ বছরের মায়ের শরীর ভালো না। তিনি একাই বাড়িতে। তিনজনের সংসারে তাঁকে সর্বক্ষণ থাকতে হচ্ছে, তাই গত তিনমাসের মধ্যে তিনি ক্ষমা চাওয়ার সুযোগ পাননি, এমনও বলেন গর্গ চট্টোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত, একটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট থেকেই শুরু হয় বিতর্ক। আসামের তাই হোম জনজাতির সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্য করেছেন বলে অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে। তারপরেই নড়েচড়ে বসে আসাম সরকার। কড়া পদক্ষেপ করার নির্দেশ দেওয়া হয়। খবর পাওয়া যায়, গর্গ চট্টোপাধ্যায় কে গ্রেফতার করতে কলকাতা আসে আসাম পুলিশের একটি দল। বিরাট সম্ভাবনা তৈরি হয় তাঁর গ্রেফতারির। তারপরেই ক্রমশ আর সক্রিয় হওয়ার বিষয় চোখে পড়ে না এই নেতার। প্রায় অন্তরালেই রয়েছেন তিনি, এমনও জল্পনা ওঠে। অবশেষে শনিবার তিনি নিজেই এলেন প্রকাশ্যে এবং জানালেন ক্ষমা প্রার্থনার বিষয়টিও।

Related Articles