fbpx
দেশনতুন খবররাজনৈতিক

কার আদর্শ মেনে ক্রিকেট ছেড়েই রাজনীতিতে, নিজের মুখে কারণ জানালেন গৌতম গম্ভীর।

একের পর এক সেলেবদের দলে যোগদান অন্যমাত্রায় পৌঁছে দিয়েছে গেরুয়া শিবিরকে। মাত্র কয়েক বছরের মধ্যেই কেন্দ্র থেকে রাজ্যে যেন বিজেপি ম্যানিয়া শুরু হয়েছে। তৃণমূল ছেড়েও বিজেপিতে যোগ দিয়ে দল ভারী করার সদস্য সংখ্যাও কম নয়। তবে এবারে সদ্য বিজেপিতে যোগ দিয়েও অনেকেই এবারের লোকসভা ভোটে লড়াই করার টিকিট পেয়েছেন। সেই তালিকায় রয়েছেনই বলা যায় ভারতীয় ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর। বাইশ গজের বহু যুদ্ধের সাক্ষী তিনি। কিন্তু এই প্রথম নামতে চলেছেন ভোটের ময়দানে লড়াই করতে। অন্তত গুঞ্জন এমনটাই। তিনি রাজনীতিতে নামতে পারেন এই জল্পনা বহুদিন। সেই জল্পনা সত্যি হয়েছে তাঁর অবসরের পর। কিন্তু এবার নির্বাচনে লড়বেন কি না তা এখনও স্থির নয়।

কিছুদিন আগেই ক্রিকেটকে বিদায় দিয়েই রাজনীতিতে যোগ দিয়েছেন তিনি। আর সেখানেই চিন্তা বেড়েছে। কারণ, রাজনীতির সঙ্গে ক্রিকেটের ময়দানের আকাশ পাতাল পার্থক্য রয়েছে। তবে কেন তিনি রাজনীতিতেই যোগ দিলেন। এই প্রশ্নের মুখোমুখি হয়েই গৌতম গম্ভীরের মুখে শোনা গেছে বাস্তববাদী কথা। তাঁর কথায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আদর্শেই অনুপ্রানিত হয়ে তাঁর বিজেপিতে যোগদান বলে অকপটে স্বীকার করেছেন তিনি। একই সঙ্গে তাঁর এই সুবর্ণ সুযোগ পাওয়ার জন্য অরুন জেটলি ও রবিশঙ্কর প্রসাদকেও ধন্যবাদ দিয়েছেন তিনি।

ক্রিকেটের মাঠেও দেশের হয়ে সেরা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। তাই রাজনীতি থেকেও দেশের হয়ে কাজ করার কথাও জানান তিনি। গত লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অরুন জেটলির হয়ে তাঁকে প্রচারে নামতে দেখা গিয়েছিল। আর তখন থেকেই তাঁর রাজনীতিতে যোগদানের জল্পনা বেড়ে গিয়েছিল। কিন্তু ক্রিকেট ও রাজনীতি দুই প্রান্ত সামলানোটা অনেক পরিশ্রমের। দুই কাজই মনোযোগের। তাই হয়তো এবার অবসরের পরই রাজনীতিতে যোগদান করলেন তিনি, এমন বিতর্ক তুঙ্গে।

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে গৌতম গম্ভীরের প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে দিল্লীতে। কিন্তু বর্তমানে সেখানকার সাংসদ রয়েছে মীনাক্ষী দেবী। তবে গৌতম দিল্লী বাসী হওয়ায় তাঁর গুরুত্ব জনমনে অনেক বেশি হবে বলেই মত বিজেপি নেতৃত্বদের।  ক্রিকেটে তাঁর অনবদ্য দক্ষতার জন্য তিনি পদ্মশ্রী সম্মান পেয়েছেন। এবার পালা রাজনীতিতে। রাজনীতির ময়াদানেও কি তিনি বাইশগজের মতো একই দক্ষতায় লড়তে পারেবন তা বলবে সময়।

Open

Close