মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ সপ্তদশ লোকসভার জন্য সংসদের স্থায়ী সমিতির গঠন হয়ে গেলো। এইবার বিজেপির ঘাড়ে এর দ্বায়িত্ব পড়েছে। গত লোকসভায় স্থায়ী সমিতি গড়ার দ্বায়িত্ব কংগ্রেসের হাতে ছিল। প্রথমবার সাংসদ হওয়া ভারতীয় জনতা পার্টির মধ্যপ্রদেশের ভোপাল থেকে সাংসদ প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর আর তৃণমূল কংগ্রেসের বসিরহাট থেকে সাংসদ নুসরত জাহানকে বড় দ্বায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহানকে (nusrat jahan) জল সংশাধন মামলার জন্য তৈরি সংসদীয় কমিটির সদস্য বানানো হয়েছে। আরেকদিকে এই কমিটির নেতৃত্ব বিজেপির সাংসদ সঞ্জয় জয়সওয়ালের হাতে দেওয়া হয়েছে।

মধ্যপ্রদেশের ভোপাল থেকে বিজেপির সাংসদ প্রজ্ঞা সিং ঠাকুরকে ভারতীয় রেল নিয়ে গঠিত কমিটির সদস্য বানানো হয়েছে। ফারুক আবদুল্লাহও এই কমিটির সদস্য। এই কমিটির নেতৃত্বে আছে বিজেপির সাংসদ রাধা মোহন সিং। এইবার অর্থ আর বিদেশ মন্ত্রালয়ের সাথে জড়িত স্ট্যান্ডিং কমিটির নেতৃত্ব কংগ্রেসের হাতে দেওয়া হয়নি। গত লোকসভায় এই স্ট্যান্ডিং কমিটির নেতৃত্ব কংগ্রেসের হাতেই ছিল।

বিরাপ্পা মোইলি অর্থ মন্ত্রকের সাথে জড়িত সমিতির সদস্য, আর কংগ্রেস নেতা শশী থারুর বিদেশ মন্ত্রালয়ের সাথে জড়িত স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি ছিলেন গতবার।  এই বার এই মহত্বপূর্ণ দ্বায়িত্ব বিজেপির সাংসদদের হাতে দেওয়া হয়েছে। হাজারিবাগ থেকে বিহেপির সাংসদ জয়ন্ত সিনহাকে অর্থ আর পিপি চৌধুরীকে বিদেশ মন্ত্রালয়ের সাথে জড়িত স্ট্যান্ডিন কমিটির সভাপতি বানানো হয়েছে। এই ব্যাপারে শুক্রবার রাতে লোকসভার সচিবালয়ে অধিসূচনা জারি করা হয়।

কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী, অভিষেক মনু সিংভি আর শিবসেনার সাংসদ সঞ্জয় রাউত প্রতিরক্ষা মামলায় জড়িত কমিটিতে সদস্য বানানো হয়েছে। এই সমিতির নেতৃত্বে আছেন বিজেপির সাংসদ জুয়েল ওরাম। কিছুদিন আগেই টিডিপি ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া টিজি ভেঙ্কটেশকে পরিবহণ, পর্যটন আর সংস্কৃতি মামলার সাথে জড়িত সমিতির নেতৃত্ব পেয়েছেন। প্রথমে এই দ্বায়িত্ব তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ওব্রায়েনের কাছে ছিল। ডেরেক ওব্রায়েনকে মানব সংশাধন কমিটিতে যায়গা দেওয়া হয়েছে। এই সমিতির নেতৃত্বে আছেন বিজেপির সাংসদ সত্যনারায়ণ জাটিয়া।