রাজ্যের মন্ত্রীকে দল থেকে তাড়াতে হাজার হাজার মানুষ নিয়ে রাস্তায় নামছেন তৃণমূল বিধায়ক

লকডাউনের মধ্যেও কমছে না তৃণমূলের (All India Trinamool Congress) গোষ্ঠী কোন্দল। এবার রাজ্যের মন্ত্রী সাধন পাণ্ডের (Sadhan Pande) বিরুদ্ধে সরব হলেন দলেরই বিধায়ক পরেশ পাল (Paresh Paul)। বেলেঘাটার তৃণমূলের বিধায়ক পরেশ পাল রীতিমত হুমকি দিয়েই বলেছেন যে, লকডাউন উঠলেই মন্ত্রী সাধন পাণ্ডেকে দল থেকে তাড়াতে ১৫ হাজার মানুষ নিয়ে রাস্তায় নামবেন তিনি।

সম্প্রতি রাজ্যের পুরমন্ত্রি ফিরহাদ হাকিমের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে। তিনি সরাসরি কলকাতার প্রাক্তন মেয়র তথা বর্তমানে কলকাতার প্রসাশক ববি হাকিমের বিরুদ্ধে মুখ খুলে বলেছিলেন যে, আমফান নিয়ে কলকাত পুরসভার কোন প্রস্তুতি ছিল না। এমনকি ফিরহাদ হাকিম কারোর থেকেই পরামর্শ নেয়নি বলে তোপ দেগেছিলেন তিনি।

মন্ত্রী সাধন পাণ্ডের এই মন্তব্যের ফলে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল আবারও প্রকাশ্যে এসেছিল। তৃণমূলের তরফ থেকে বর্ষীয়ান নেতা তথা রাজ্যের মন্ত্রী সাধন পাণ্ডেকে শোকজও করা হয়েছিল। আর সেই সুযোগকে হাতিয়ার করে এবার রাজ্যের ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রীর বিরুদ্ধে মোর্চা খুললেন বিধায়ক পরেশ পাল।

এটাই প্রথম না যে, সাধন পাণ্ডে আর পরেশ পালের কোন্দল সামনে এলো। এর আগেও বহুবার বাকবিতণ্ডায় জড়িয়েছিলেন তৃণমূলের এই দুই নেতা। এমনকি মন্ত্রী সাধন পাণ্ডেকে জানোয়ার আর লম্পট বলে আক্রমণ করেছিলেন পরেশ পাল।

এছাড়াও সাধন পাণ্ডের বিরুদ্ধে বড়সড় অভিযোগ করে পরেশ পাল বলেছিলেন যে, রোজভ্যালি মামলায় সিবিআই আর ইডির হাত থেকে বাঁচতে বিজেপির সাথে বোঝাপড়া করে তৃণমূলের ক্ষতি করেছেন সাধন পাণ্ডে। এবার ফিরহাদ হাকিম আর কলকাতা পুরসভাকে একহাতে নেওয়ার জন্য আবারও পরেশ পালের আক্রমণের মুখে সাধন পাণ্ডে।