চীনের রাস্তায় সনাতন ধর্মের প্রচার, চলল হরিনাম সংকীর্তন! ভিডিও ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

ভারত চীনের (China) সম্পর্ক বর্তমানে তলানিতে এসে ঠেকেছে। এই সময় চীন থেকে এমন এক ভাইরাল ভিডিও (Viral video) স্যোশাল মিডিয়ায় উঠে এসেছে, যা না দেখলে বিশ্বাস করা খুবই কঠিন। এই ভিডিও যারা দেখেছেন, সকলেই তাজ্জব বনে গেছেন। সীমান্ত এলাকার সংঘর্ষের মধ্যেও চীনের রাস্তার এক ঘটনার ভিডিও ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়েছে স্যোশাল মিডিয়ায়।

চীন কমিউনিস্ট ভাবধারার দেশ। চীন সরকার সর্বদা তাঁর দেশের নাগরিকদের মধ্যে কমিউনিস্ট ভাবধারা বজায় রাখাতে বদ্ধ পরিকর। এমনকি চীন থেকে বৌদ্ধ ধর্ম ছাড়া অন্যান্য ধর্মকে সম্পূর্ণ রূপে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। খ্রিস্টান, মুসলিম ধর্ম সম্পূর্ণ মুছে দিতে চাইলেও, চীনে যে হিন্দু ধর্ম ব্যাপকভাবে বিস্তার লাভ করেছে, তা এই ভাইরাল ভিডিও থেকেই প্রমাণ পাওয়া যায়।

চীনের রাস্তায় ‘হরে কৃষ্ণ’
দিনের বেলা চীনের রাস্তায় নেমে বেশ কয়েকজন তরুণ তরুণী খোল করতাল এবং মৃদঙ্গ সহযোগে ‘হরে কৃষ্ণ’ নাম গাইছেন। শুনতে অবিশ্বাস্য মনে হলেও, এটি কিন্তু বাস্তব সত্য। সম্প্রতি ইসকনের তরফ থেকে এমনই একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে, যা হু হু করে নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

ভাইরাল ভিডিওতে দেখে যাচ্ছে
ভিডিওটিতে দেখা যাছে, চীনের রাস্তায় চাইনিজ তরুণীরা ভারতীয় হিন্দু মহিলাদের মতো করে শাড়ি পড়েছে। এবং সেইসঙ্গে তরুণরাও ভারতীয় হিন্দু পুরুষদের মতো করে ধুতি পাঞ্জাবি পরে হরে কৃষ্ণ নাম গাইছেন। সেইসঙ্গে রাস্তায় খোল করতাল এবং মৃদঙ্গ সহযোগে মধুর সুরে হরিনাম সংকীর্তন গেয়ে নেচে নেচে ঘুরছেন। তাঁদের এই ভগবান বন্দনা দেখতে রাস্তায় ভিড়ও জমিয়েছেন অনেকেই। তাঁদের মধ্যে কেউ কেউ আবার এই ঐতিহাসিক মুহূর্তকে ক্যামেরা বন্দিও করছেন। সেইসঙ্গে চীনে অবস্থিত ইসকনের ভক্তরা চাইনিজ ভাষায় লেখা কৃষ্ণ নামের বইও বিলি করছে।

সমস্ত বিষয়টির মধ্যে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, চীনা পুলিশ এই অনুষ্ঠানের চারপাশের ভিড় সামলাতে ব্যস্ত রয়েছে। চীন সরকার ভারতের বিরুদ্ধে যতই বিরোধিতা করুক না কেন, চীনা নাগরিকদের মধ্যে যে ইসকনের ভক্তও রয়েছে, এই ভিডিও তা প্রমাণ করে দিল।