চিদম্বরমকে পাকিস্তানে আমন্ত্রণ জানালেন ইমরান খান, অর্থমন্ত্রী হওয়ার প্রস্তাবও দিলেন তিনি

মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ ইসলামাবাদঃ আমরা সবাই অল্প বিস্তর জানি যে, দেশে এখন কি চলছে? না এখন আর ফগ চলছে না। এখন দেশে শুরু পি. চিদম্বরম এর নাম চলছে। আর তাঁর প্রধান কারণ হল, INX মিডিয়া কেলেঙ্কারিতে ভারতের প্রাক্তন অর্থ মন্ত্রী পি. চিদম্বরম জোর ফেঁসে গেছে। ইডি আর সিবিআই প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীকে হন্যে হয়ে খুঁজছে, কিন্তু ওনাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা। অনেকেই দাবি করে বলেছেন যে, প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি. চিদম্বরম দেশ ছেড়ে পালিয়েছে বিজয় মাল্য, মেহুল চোকসি আর নীরব মোদীর মতই। কিন্তু উনি আদৌ এখন কোথায় আছে সেটা বলা মুশকিল।

গতকাল দিল্লী হাইকোর্ট থেকে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রী মন্ত্রী পি. চিম্বরম বড়সড় ঝটকা খায়। আদালত আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় প্রাক্তন অর্থ মন্ত্রীর অগ্রিম জামিন এর আবেদন খারিজ করে দেয়। হাইকোর্ট জানায় এটি আর্থিক তছরুপের একটি আজব মামলা, আর এই মামলায় অগ্রিম জামিন দিলে সমাজের কাছে ভুল বার্তা যাবে। চিদম্বরমের আইনজীবী আবেদন করে তিন দিনের সময় চেয়েছিল, সেই আবেদন সরাসরি খারিজ করে দেয় আদালত। এরপরেই প্রবীণ কংগ্রেস নেতা পি. চিদম্বরমের উপর গ্রেফতারির তলোয়ার ঝুলতে থাকে।

পি চিদাম্বরম দেশের অর্থমন্ত্রী পদেও ছিলেন। উনার আমলে দেশে ব্যাপক পর্যায়ে দুর্নীতির অভিযোগও সামনে এসেছিল। এখন CBI টিম সক্রিয় হয়ে দুর্নীতি দমনে নেমে পড়েছে। সরকার ও দেশের শক্তিশালী সংস্থাগুলি দুর্নীতির উপর অন্তিম প্রহারের কাজ শুরু করেছে বলে ধরা হচ্ছে। INX মিডিয়া মামলায় CBI তদন্ত শুরু করেছে। আদালতের শুনানির সময় সিবিআই প্রাক্তন অর্থ মন্ত্রীর বাড়ি যায়। কিন্তু সেখানে ওনাকে পাওয়া যায়না। বাকিদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে, তিনি কোথায় গেছেন, সেটা কেউ জানেনা বলে জানিয়ে দেয়। এরপর ইডির টিম প্রাক্তন অর্থ মন্ত্রীর বাড়ি ওয়ারেন্ট নিয়ে যায়। শোনা যাচ্ছে যে, এবার ওনাকে গ্রেফতার করা হবে।

প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমের পলাতক হওয়ার খবর রটে যাওয়ার পরেই পাকিস্তান থেকে বড় খবর আসে। শোনা যাচ্ছে যে, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমকে পাকিস্তানে যাওয়ার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। ইমরান খান চিদম্বরমকে পাকিস্তানের নাগরিকতা এবং সেই দেশের অর্থ মন্ত্রী হওয়ার প্রস্তাব পাঠিয়েছেন। পাকিস্তানের দৈনিক সংবাদমাধ্যম ‘হেফাজত-ই-পাক” এর একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, পাক প্রধানমন্ত্রী বলেছেন যে, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশে গণতন্ত্রের হত্যা করছে। একের পর এক বিরোধী সৎ নেতাদের জেলে ঢোকাচ্ছে। আমরা এর ঘোর বিরোধিতা করছি, এবং ভারতের যেসব নেতা নেত্রীরা তাঁদের দেশে আক্রান্ত হয়েছে তাঁদের আমি পাকিস্তানে আসার আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। এদেশে ভারতের মতো গণতন্ত্রের হত্যা হয়না।” এমনকি ইমরান খান পাকিস্তানকে পৃথিবীর সবথেকে স্বচ্ছ গণতান্ত্রিক দেশ বলে আখ্যা দিয়েছেন।

Related Articles