পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে চরম অপমান করলেন বিল গেটস

প্রধানমন্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও পাকিস্তান (Pakistan) সরকার ইমরান খান (Imran khan) নিজের দেশেই কোন গুরুত্ব পান না। দেশের মানুষের বিষয়ে হোক কিংবা যে কোন বিষয়ে সর্বদা পাক সেনাবাহিনী সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে। দেশের মানুষের পরবর্তীতে বর্তমানে বহির্দেশের নেতা হোক কিংবা বড় ব্যবসায়ী তারাও ইমরান খানের অবস্থা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল হয়ে গিয়েছে।

পাকিস্তানের যে কোন সাধারণ সমস্যা থেকে শুরু করে গুরুতর সমস্যার সমাধানে যেখানে এগিয়ে রয়েছে পাক সেনাবাহিনী, সেখানে পাক সরকার ইমরান খান রয়েছেন তাঁদের পিছনে।

পাকিস্তানে পোলিও টিকাকরণ
বর্তমান দিনে খবর পাওয়া যাচ্ছে, বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে থাকা বিল গেটস, পাকিস্তানে পোলিও টিকাকরণের কাজ করতে চাইছেন। কিন্তু এই বিষয়ে আলোচনা প্রসঙ্গে তিনি পাক প্রধানমন্ত্রীকে কোনোরকম প্রাধান্য না দিয়ে, পাক সেনার প্রধান জেনারেলের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

সত্যি প্রমাণিত হচ্ছে ভারতের কথা
প্রায় সমগ্র বিশ্বই এবিষয়ে অবগত যে, পাকিস্তানে সেনা বাহিনীই দেশের সর্বোচ্চ ক্ষমতার অধিকারী, সেখানে বিল গেটসের এই আচরণে কেউই অবাক হয়নি। এই ঘটনার পর ভারতের কথার পক্ষে সমর্থন মিলেছে, যে পাকিস্তানে লোকতন্ত্র শুধুমাত্র নিয়ম রক্ষার্থে রয়েছে। সমগ্র দেশের নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব রয়েছে সেনাবাহিনীর হাতে।

পাকিস্তানে পোলিও টিকার পরিস্থিতি
শোনা গিয়েছে, বিল গেটস পাকিস্তানের সেনা প্রধানের সাথে করোনা পরিস্থিতিতে যাতে পোলিও রোগের বৃদ্ধি না ঘটে সে বিষয়ে আলোচনা করেছেন। সম্প্রতিকালে আর্থিক সংকট দেখিয়ে পাকিস্তানের পোলিও টিকাকরণ কাজের সঙ্গে যুক্ত প্রায় ১১ হাজার কর্মীকে ছাটাইয়ের খবর শোনা গিয়েছিল। যাদের মধ্যে এমন কিছু স্বাস্থ্যকর্মী মহিলা রয়েছেন, যারা করোনা সংক্রমণকালে প্রথম সারির যোদ্ধা হিসাবে কাজ করছিলেন।

আলোচনা করলেন বিল গেটস
করোনা সংক্রমণের কারণে পাকিস্তানে পোলিও টিকাকরণের কাজ মার্চ মাসেই স্থগিত করা হয়েছিল। তবে গত মাসে এই অভিযান আবার চালু করা হয়েছে। এরই মধ্যে পাক সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই করোনা মহামারির মধ্যেই মাইক্রোসফটের সহ সংস্থাপক বিল গেটস এবং সেনা প্রধান আবারও পোলিও টিকাকরণের সূচনার বিষয়ে আলোচনা করেছেন।