চীনের গালে সপাটে চড় ভারতের, বেইজিংকে চমকে দিয়ে বড় ঘোষণা দিল্লির

নয়া দিল্লিঃ ভারতের বিদেশ মন্ত্রক ঘোষণা করেছে যে, চীনে তার রাষ্ট্রদূত বেইজিংয়ে শীতকালীন অলিম্পিকের উদ্বোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন না। উল্লেখ্য, ভারতীয় সেনাবাহিনীর সাথে গালওয়ান উপত্যকায় সংঘর্ষে জড়িত একজন সৈনিককে অলিম্পিক মশালের বাহক বানিয়েছিল চীন। এটি বুধবার চীনা সংবাদপত্র গ্লোবাল টাইমস দ্বারা প্রকাশ করা হয়েছে, যার পরে ভারত ড্রাগনের পদক্ষেপে তার অসন্তোষ প্রকাশ করেছে এবং শীতকালীন অলিম্পিকের ‘প্রতীকী’ কূটনৈতিক বয়কট ঘোষণা করেছে।

চীন শীতকালীন অলিম্পিক মশাল দিয়ে পিএলএ-র গালওয়ান ভ্যালি কমান্ডারকে সংবর্ধনা দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র বলেছেন, “আমরা এই বিষয়ে রিপোর্ট দেখেছি। এটি দুঃখের বিষয় যে চীন অলিম্পিকের মতো একটি ইভেন্টকে রাজনীতিকরণ করতে বেছে নিয়েছে।” এদিকে, প্রসার ভারতী’র সিইও শশী শেখর ভেম্পতি একটি টুইটে বলেছেন যে, দূরদর্শনের স্পোর্টস চ্যানেল ডিডি স্পোর্টসও বেইজিংয়ে শীতকালীন অলিম্পিকের উদ্বোধনি এবং সমাপ্তি অনুষ্ঠান সম্প্রচার করবে না।

উল্লেখ্য,15 জুন 2020-এ গালওয়ান উপত্যকায় সংঘাতে জড়িত পিপলস লিবারেশন আর্মির রেজিমেন্ট কমান্ডারকে বেইজিংয়ে শীতকালীন অলিম্পিকের মশাল বাহক হিসাবে নির্বাচিত করেছে চীন। 15 জুন 2020-এ গালওয়ান উপত্যকায় সংঘর্ষের পর পূর্ব লাদাখে সীমান্ত দুই দেশের মধ্যে সীমান্ত বিবাদ বৃদ্ধি পায়। এই লড়াইয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনীর 20 জন জওয়ান শহীদ হন। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে চীন আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার করে যে তাদের পাঁচজন সামরিক কর্মকর্তা ও সৈন্য শহীদ হয়েছেন।

অন্যদিকে, বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি অরুণাচল থেকে অপহৃত কিশোরকে নির্যাতনের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তিনি বলেন, আমরা বিষয়টি চীনের কাছে তুলে ধরেছি এবং জবাব চেয়েছি। উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগে অরুণাচল প্রদেশের সীমান্ত থেকে এক কিশোরকে অপহরণ করেছিল চীনা সেনারা। যদিও, ভারতের চাপের পরে চীন 27 জানুয়ারি সেই কিশোরকে ফিরিয়ে দেয়।

China Trade Surplus: कोरोना काल में चीन ने रचा इतिहास, ट्रेड सरप्लस ने बनाया नया रिकॉर्ड

বলে রাখি যে, শুধু ভারতই নয়! এর আগে আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশগুলোও চীনের শীতকালীন অলিম্পিককে কূটনৈতিক বহিষ্কার করেছে। পাশাপাশি আরও কয়েকটি দেশও চীনের বিরুদ্ধে সরব হয়ে বেইজিং অলিম্পিককে বহিষ্কার করেছে।