বন্ধু ভারতকে শক্তিশালী সিস্টেম দিচ্ছে ইজরায়েল, চীনও চেয়েছিল কিন্তু দেননি নেতানইয়াহু

ভারত (india) এবং ইজরায়েলের (Israel) বন্ধুত্বের নিদর্শন নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে বহুবার চর্চা হয়েছে। এবার আবারও সেই ইজরায়েল এবং ভারতের বন্ধুত্বের প্রকাশ ঘটতে চলেছে। চীনকে অস্বীকার করে ভারতকে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি দিয়ে সাহায্য করবে ইজরায়েল। এডাব্লুএইচএস (AWACS) বিমান এমন এক অত্যাধুনিক প্রযুক্তি, যার সাহায্যে মাইল মাইল দূর থেকে চীনের গতিবিধির উপর নজরদারি রাখতে পারবে। এমন এক শক্তিশালী ক্ষমতা চীনকে না দিয়ে ভারতকে দিচ্ছে ইজরায়েল।

সিস্টেমের ক্ষমতা
ফ্যালকনস এয়ারবর্ন সতর্কতা ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা, এমন এক শক্তিশালী নজরদারি সিস্টেম যা বায়ুর নীচ থেকে শত্রুদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করতে সক্ষম। সেইসঙ্গে এই সিস্টেম C2BM অর্থাত্ কমান্ড, নিয়ন্ত্রণ এবং যুদ্ধ পরিচালনায় সহায়তা করতেও সক্ষম। স্থল, জল এবং আকাশ কোন পথে কোন শত্রু লুকিয়ে আছে, তাও জানা সম্ভব এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে। আধুনিক AWACS সিস্টেম 400 কিলোমিটার দূরে থেকেই শত্রুর হামলা চিহ্নিত করতে সক্ষম।

সিস্টেম প্রস্তুত করছে ইজরায়েল
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ১৯৩০ সালে এই ধরনের সিস্টেম তৈরি করা হয়েছিল। তারপর থেকেই আত্মরক্ষামূলক এবং রক্ষণাত্মকভাবে কার্যকারী এই শক্তিশালী সিস্টেম প্রস্তুত করতে প্রায় প্রতিটি দেশই উঠে পরে লাগে। তবে বর্তমানে এই দৌড়ে ইজরায়েল এগিয়ে রয়েছে।

চুক্তি হয়েছে দুই দেশের মধ্যে
বর্তমান দিনে ইজরায়েলের থেকে এই ধরনের শক্তিশালী সিস্টেম দুটি কিনতে চলেছে ভারত, যা নিয়োগ করা হবে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে। সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, এই সিস্টেম কেনার বিষয়ে দুই দেশের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। জানা গিয়েছে ২ বিলিয়ন ডলারে এই চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে।

চাপে চীন পাকিস্তান
পূর্বে চীন ইজরায়েলের থেকে এই সিস্টেম কিনতে চাইলেও আমেরিকা সেক্ষেত্রে বাধাদান করেছিল। কিন্তু বর্তমান ইজরায়েল ভারতকে দিচ্ছে এই শক্তিশালী সিস্টেম, যার জেরে কিছুটা হলেও চাপে রয়েছে চীন পাকিস্তানের মত বিরোধী দেশগুলো।