থুতু দিয়ে চারিদিকে করোনা ছড়িয়ে দেব! JNU এর ছাত্রের হুমকি ভরা ভিডিও ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

দ্রুত হারে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে দেশজুড়ে। তার মধ্যেই অবশ্য নিয়মভঙ্গের হাজারও নজির তৈরি হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এবার লকডাউনের মাঝে চূড়ান্ত বিশৃঙ্খলা তৈরির নজির গড়লেন জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র। রাতদুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে ব্যারিকেডে হেলান দিয়ে বসে এক ছাত্র নিরাপত্তারক্ষীদের কথার অবাধ্য তো হচ্ছেনই। হুমকি দিচ্ছেন, থুতু ছিটিয়ে তাঁদের অসুস্থ করে দেবেন বলে। তাঁর এই আচরণের জেরে ফের শিরোনামে দেশের এই নামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

এই মুহূ্র্তে দেশে করোনা সংক্রমণের অন্যতম হটস্পট হয়ে দাঁড়িয়েছে রাজধানী দিল্লি। এখানে ২৪ মার্চের আগে থেকেই কার্যত লকডাউন চলছে। কিন্তু তা অগ্রাহ্য করেই জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে এক ছাত্রকে দেখা গেল চরম অভব্যতা করতে। সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, হাফ প্যান্ট, টি-শার্ট পরা এক যুবক, কিছুটা উদভ্রান্ত চেহারা, হাতে একটি ভাঁজ করা কাগজ, বসে রয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে পুলিশের দেওয়া লোহার ব্যারিকেডে হেলান দিয়ে। তাঁকে নিরাপত্তারক্ষীরা সমানে সেখান থেকে উঠে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করছেন। কিছুতেই তা তিনি মানতে চাইছেন না। উলটে নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে তর্ক করছেন। তাঁদের ভিডিও করতে দেখে ওই যুবক শ্লেষের সুরে বলছেন – “যতই ভিডিও করুন, পুলিশের হাতে তা তুলে দিন, কোনও লাভ নেই।” হাতের কাগজটি পালটা দেখিয়ে দাবি করলেন যে ওই জায়গায় তাঁর বসে থাকার অনুমতিপত্র রয়েছে।

এরপর তিনি যা করলেন, তাতে একেবারে হতবাক নিরাপত্তারক্ষীরা। বললেন, তাঁকে ওখান থেকে তুলে দেওয়ার চেষ্টা করলে তিনি নিরাপত্তারক্ষীদের লক্ষ্য করে থুতু ছিটিয়ে দেবেন, তাঁদের গায়ের উপর কাশবেন। অর্থাৎ যে ‘ড্রপলেট’ এই মুহূর্তে জীবাণু সংক্রমণের মূল ভিলেন, তার মাধ্যমেই তিনি রোগ ছড়ানোর হুমকি দিচ্ছেন! একথা শুনে আর নিরাপত্তারক্ষীরা ওই ছাত্রের ধারকাছে ঘেঁষতে পারেননি। সংক্রমণ আতঙ্কে এখন সকলেই যে কাঁটা।

তবে জেএনইউ-এর মতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রের এহেন আচরণের ভিডিও ভাইরাল হতেই নিন্দার ঝড় সবমহলে। দেশের এমন সংকটজনক পরিস্থিতিতে যেখানে সকলকে সতর্ক থাকার কথা বারবার নানাভাবে বলা হচ্ছে, সেখানে দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের প্রতিনিধি হয়ে এমন দায়িত্বজ্ঞানহীনের পরিচয় দিচ্ছেন এক ছাত্র, এই ঘটনা নিন্দনীয় তো বটেই, উদ্বেগজনকও।