পড়াশোনা করুন, তারপর কি হবে চিন্তা করবেন নাঃ মমতা ব্যানার্জী

বেকরত্বের পথ থেকে এবার মিলবে অব্যহতি? কর্মসংস্থানের সুদিন দেখতে চলেছে বাংলা? এদিন তেমনই ইঙ্গিত দিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনের সভায় তৃণমূল সুপ্রিমো বলেন দেশে যেখানে বেকারত্বের হার ৪২ শতাংশ বেড়েছে, সেখানে বাংলায় ৪০ শতাংশ বেকারত্ব কমেছে। কারণ বাংলা হাতে কলমে কাজ করায়। এর জন্য ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনায় মনোযোগ দিতে বলেছেন তিনি। জানিয়েছেন, ‘পড়াশোনা করুন। চিন্তা করবেন না তারপর কী হবে।’

মমতা এদিন বলেন, “বাংলা একমাত্র রাজ্য ১০ কোটি লোকদের মধ্যে প্রায় ১০ কোটি মানুষকেই রেশন কার্ড দেওয়া হয়েছে।” পরিযায়ী শ্রমিক, পতিতালয়ে মহিলা সহ রাজ্যের সমস্ত মানুষকে ইতিমধ্যেই রেশন কার্ড দেওয়া হয়েছে বলে জানান তৃণমূল নেত্রী। বাকি যাদের রয়েছে, তাদেরও খুব শীঘ্রই রেশন কার্ড দেওয়া হবে বলেও আশ্বাস দেন তিনি। এদিনেক সভায় তিনি করোনা যোদ্ধা সমস্ত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের স্যালুট জানান। এছাড়া সমস্ত পুলিশকর্মী, নার্স ও সংবাদমাধ্যমের কর্মী, ডেডবডি বয়ে নিয়ে যাওয়া মানুষ, অ্যাম্বুল্যান্স চালক ও সাফাইকর্মীদেরও কুর্নিশ জানান তিনি।

এছাড়া এদিন সভা থেকে কর্মসংস্থানেরও ইঙ্গিত দেন তিনি। বলেন, স্মল স্কেলে ১ কোটিরও বেশি মানুষকে চাকরি দিয়েছে সরকার। ৬৫টি ইন্ডিস্ট্রিয়াল পার্কে ক্লাস্টার তৈরি হয়েছে। এদিন তিনি বলেনরাজারহাটে তৈরি হচ্ছে সিলিকন হাব। সেখানে আই টি প্রফেশনালরা চাকরি পাবেন বলে জানান তৃণমূল সুপ্রিমো। এছাড়া বানতলায় লেদার কমপ্লেক্সেও কর্মসংস্থানের ইঙ্গিত দেন তিনি। ৫ লক্ষ মানুষ সেখানে চাকরি পেতে পারেন। হাওড়াতেও ছোট শিল্পের হাব তৈরি হচ্ছে যেখানে ২ লক্ষ মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ রয়েছে। এছাড়া দিঘায় কেবল ল্যান্ডিং স্টেশনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এমনই অনেক কর্মসংস্থানের কথা এদিন সভায় ঘোষণা করেন তৃণমূল নেত্রী।