fbpx
নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনৈতিক

ভাইপো অভিষেকের স্ত্রীর বিমানবন্দরে সোনা নিয়ে ধরা পড়ার প্রসঙ্গে এবার মুখ খুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিমানবন্দরে ভাইপোর স্ত্রীর ব্যাগ থেকে সোনা উদ্ধার নিয়ে এবার মুখ খুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ লোকসভা ভোটের আগে বিরোধীরা যে বিষয়টিকে ইস্যু করে এগিয়ে যেতে চাইছিল এবার তাতে খানিকটা জল ঢেলে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী নিজেই৷ মঙ্গলবার নবান্নে সাংবাদিকদের সামনে বিষয়টির সঙ্গে তাঁর কোনো যোগ নেই বলে সরাসরি জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ একইসঙ্গে তাঁকে এই বিষয়ে বার বার প্রশ্ন করায় তিনি বেশ ক্ষীপ্ত হয়ে উঠেছেন তাও বোঝা গিয়েছে এদিন৷ ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীর নিয়ে বিরোধীরা যে অভিযোগ করেছে বিদেশ থেকে কলকাতা বিমানবন্দরে আসার পথে তাঁর কাছ থেকে নাকি দু কেজি সোনা উদ্ধার করা হয়েছে৷ বিরোধীদের আনা অভিযোগের ভিত্তিতে শোনা গিয়েছিল নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীর কাছ থেকে আয়কর ও শুল্ক দফতরের রিপোর্ট চাওয়া হয়৷

কিন্তু ওই রিপোর্টে জানা যায় আয়কর ও শুল্ক দফতর অভিষেকের স্ত্রীর কাছ থেকে কোনো কিছুই বাজেয়াপ্ত করা হয় নি৷ ব্যাস রিপোর্ট জানার পর থেকেই বিরোধীরা প্রায় ক্ষেপে আগুন হয়ে গিয়েছে৷ অন্যদিকে স্ত্রীর বিরুদ্ধে বিরোধীদের আনা অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের কাছে বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে এবং বিমানবন্দরে ভুয়ো খবর ছড়ানোর বিরুদ্ধে একটি চিঠিও পাঠিয়েছেন তিনি৷

এই প্রসঙ্গে এক সাংবাদিক বৈঠকে তিনি তাঁর স্ত্রী ব্যাগে এত নিষিদ্ধ জিনিস থাকার সত্ত্বেও কেন বিমানবন্দরের আধিকারিকরা তাঁকে আটক করেননি সেই বিষয়েও প্রশ্ন তোলেন৷ একই সঙ্গে সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখার চ্যালেঞ্জও নিয়েছেন তিনি৷ এমনকি অভিযোগ প্রমানিত হলে রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার কথাও জানান তিনি৷ পাশাপাশি, স্ত্রীর হয়ে সাফাই করে তাঁর স্ত্রী বিদেশে চিকিৎসার জন্য গিয়েছিলেন বলেও জানান তিনি৷

এমনকি তাঁর সমস্ত প্রমানও তাঁর কাছে আছে বলেন তিনি৷ একইসঙ্গে কাস্টমসের অভিযোগ মিথ্যা বলে জানিয়েছেন অভিষেক৷ প্রসঙ্গত, এবারের লোকসভা ভোটে রাজ্যের শাসকদলকে রাজ্য ছাড়া করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে বিরোধীরা৷ এর আগে সিপিএম আর এখন এসে জুড়েছে বিজেপি৷ 2019 এর মধ্যে রাজ্যে গেরুয়া শিবিরের আধিপত্য বিস্তার করতে জোরকদমে প্রস্তুতি নিচ্ছে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বরা৷ রাজ্যেই বিজেপি নেতৃত্বদের মধ্যে অমিত শাহের বেশ কয়েকটি সভা করারও কথা আছে আবার লোকসভা ভোটের মাত্র কয়েকদিন আগেই রাজ্যে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ সব মিলিয়ে পোয়া বারো বিজেপির৷ তাই একটু হলেও চিন্তার ভাঁজ রয়েছে শাসক দলের অন্দরে৷ যদিও 42টি আসনেই প্রার্থী রয়েছে তাঁদের৷

Open

Close