fbpx
দেশনতুন খবররাজনৈতিক

লোকসভা নির্বাচনের মুখে রাহুলকে পিছনে ফেলে প্রধানমন্ত্রীর দৌড়ে এগিয়ে গেলেন নরেন্দ্র মোদি। কারণ উনি দেশপ্রেমিক, সাহসী।

লোকসভা নির্বাচনের পারদ উর্দ্ধমুখী৷ তার সঙ্গে বাড়ছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আবার জয়লাভের সম্ভাবনাও৷ আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের নির্ঘন্ট প্রকাশিত হতে না হতেই দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রীর লড়াইয়ে মোদীর সাফল্য কতটা এই নিয়ে ইন্ডিয়া টুডের জন্য অ্যাক্সিস মাই ইন্ডিয়ার পলিটিক্যাল স্টক এক্সচেঞ্জ এমনটাই জানাচ্ছে৷ স্টক এক্সচেঞ্জের সমীক্ষা অনুযায়ী কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে প্রধানমন্ত্রী হতে গেলে বর্তমান প্রধামন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করতে হবে৷ শুধু তাই নয় সমীক্ষায় নরেন্দ্র মোদীর জনপ্রিয়তা নিয়েও তথ্য প্রকাশিত হয়েছে৷ সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ও তপশিলী জাতি ও উপজাতিদের মধ্যে মোদীর বিরাট জনপ্রিয়তা রয়েছে বলেও জানা গিয়েছে৷ তাই সেই জনপ্রিয়তা লোকসভা ভোটে অনেকটাই প্রভাব ফেলবে বলে সমীক্ষাকারীদের মত৷ চলতি মাসে ওই সমীক্ষা অনুযায়ী মোদীকে মোট 52 শতাংশ মানুষ পছন্দ করেন৷

অন্যদিকে রাহুল গান্ধীর জনপ্রিয়তা 33 শতাংশেরও কম৷ যা জানুয়ারী মাসের সার্ভের তুলনায় অনেকটাই বেশি৷ কিন্তু জানুয়ারী মাসে পিএসইর সার্ভে অনুযায়ী রাহুল গান্ধীকে প্রধানমন্ত্রী পদে দেখতে চাওয়া মানুষের পরিমান ছিল 35 শতাংশ৷ তাই তুলনামূলক ভাবে প্রধানমন্ত্রীর পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সম্ভাবনাও তেমন উর্ধ্বমুখী৷ অন্যদিকে ওবিসি শ্রেনীর মানুষের কাছ থেকে প্রধানমন্ত্রী মোট 67 শতাংশ ভোট পেয়েছেন৷ কিন্তু জানুয়ারী মাসের সমীক্ষায় এই পরিমান ছিল 55 শতাংশ৷ তাহলে দেখা যাচ্ছে লোকসভা নির্বাচন যতই এগিয়ে আসছে ততই প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন শ্রেনীর মানুষের কাছে চাহিদাও বাড়ছে৷ ইন্ডিয়া টুডের সমীক্ষা অনুযায়ী দেশের বেশিরভাগ সংসদ থেকে প্রধানমন্ত্রীর জনপ্রিয়তা রাহুলের থেকে অনেক বেশি৷ তবে প্রধানমন্ত্রীর দৌড়ে নরেন্দ্র মোদী অনেকটা এগিয়ে থাকলেও চিন্তায় ফেলতে পারে প্রিয়ঙ্কা গান্ধীর দলে যোগ দেওয়া৷

আপাতত প্রিয়ঙ্কা গান্ধী উত্তরপূর্ব ভারতের সভাপতির দায়িত্ব সামলাচ্ছেন৷ রাহুলের বদলে প্রিয়ঙ্কা যদি প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হয়ে লড়াই করেন তাহলে কি সমীক্ষার ফল উল্টো কথা বলবে, তা জানাবে ভোটের ফলই৷ অন্যদিকে বেশ কয়েকদিন আগে আরও একটি সমীক্ষার তথ্য প্রকাশিত হয়েছিল৷ সেখানে মোদীর জনপ্রিয়তা এখন 85 শতাংশে ঠেকেছে বলে জানা যায়৷ মোদী আসার পর মুল্যবৃদ্ধি সহ একাধিক সমস্যা সমাধান হয়েছে বলেও মত প্রকাশ করেন প্রায় 50 শতাংশের বেশি মানুষ৷ অন্যদিকে রবিবারই লোকসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ প্রকাশিত হয়েছে৷ মোট সাত দফায় হবে এবারের ভোট৷ এবারের ভোট নির্বিঘ্নে শেষ করতে কেন্দ্রের তরফ থেকে একাধিক পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে৷ তবে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের ফল ও ইন্ডিয়া টুডের সমীক্ষা কতটা মিলতে পারে তা জানা সময়ের অপেক্ষা মাত্র৷

তবে এই মুহূর্তে সার্জিক্যাল স্টাইক সহ বিভিন্ন সাহসী পদক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর দৌড়ে নরেন্দ্র মোদিকে আরো অনেক ধাপ এগিয়ে দিয়েছেন। অপরদিকে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক এর প্রমাণ চেয়ে দেশবাসীর কাছে লজ্জিত হয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী এবং সেই সাথে সাথে তিনি প্রধানমন্ত্রীর দৌড়ে নরেন্দ্র মোদীর তুলনায় অনেকটাই পিছিয়ে গিয়েছেন। তাই এখন এটাই দেখার বিষয় যে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে দেশের জনগণ কার হাতে দেশের পরবর্তী পাঁচ বছরের দায়িত্ব তুলে দেন।

Open

Close