৬০ নম্বর নিকাহ করতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়ল আবু বক্কর

0
23

মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ নতুন নতুন বিয়ে করতে নিজেকে কখনও সরকারি আধিকারিক, ব্যবসায়ী, কখনও বিভিন্ন নামিধামি ওষুধ কোম্পানির রিপ্রেজেন্টেটিভ হিসেবে পরিচয় দিতেন আবু বক্কর। ভূয়া নাম-ঠিকানা ব্যবহার করে একে একে ৬০টি বিয়ে করে সে। তবে শেষ রক্ষা হয়নি। ৬০তম বিয়ে করে ধরা খেয়েছে এই লম্পট।

বাংলাদেশের জামালপুর জেলার ইসলামপুরে বাড়ি আবু বক্করের। শেষ স্ত্রীর করা মামলায় গত শনিবার আবু বক্কর (৪৫) নামের এই প্রতারক লম্পটকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সে এলাকায় চিটার বক্কর নামে পরিচিত। ১৭ বছর বয়সে সে প্রথম বিয়ে করে। বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় নানা ধরনের আত্মীয় পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ব্যবসা, কোথাও রিপ্রেজেন্টেটিভ চাকরি, অবিবাহিত, স্ত্রী মারা গেছে এ সব কথা বলে বিভিন্ন ভূয়া ঠিকানা ব্যবহার করে ৪৫ বছর বয়সে ৬০টি বিয়ে করেছেন এই প্রতারক।

বিয়ে করা তার পেশা হিসেবে নিয়েছিল। অসহায় মেয়েদের বিয়ে করে হাতিয়ে নিয়েছে মোটা অংকের টাকা। অবশেষে নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা উপজেলার ঔটি গ্রামে ৬০তম স্ত্রী রোজি খানমের মামলায় ধরা পড়েছে এই প্রতারক।

ইসলামপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আনছার আলী জানান, প্রতারণা করে বক্কর প্রায় ৬০টি বিয়ে করেছে। সে নিজেই স্বীকার করেছে। এলাকায় সে চিটার বক্কর নামে পরিচিত। পূর্বধলা থানায় স্ত্রী রোজি খানমের মামলায় ইসলামপুর থানা পুলিশের সহায়তায় তাকে গ্রেপ্তার করে ওই থানায় পাঠানো হয়েছে।