নোবেলকে সারেগামাপা এর খেতাব পাইয়ে দিতে আমরণ অনশনে এক বাংলাদেশি যুবক

বাংলাদেশ: এক সপ্তাহ হয়ে গেলো সারেগামাপার গ্র্যান্ড ফাইনাল শেষ হয়েছে। ওই ফাইনালে তিন অংশীদারের মধ্যে সবথেকে চর্চিত মুখ ছিলো বাংলাদেশের স্বনামধন্য গায়ক নোবেল (Nobel)। গোটা বাাংলা চেয়েছিল নোবেল এই খেতাব জিতে দেশের মুখ উজ্জ্বল করুক। কিন্তু জি বাংলার এই অনুষ্ঠানে নোবেল প্রথম হতে পারলেন না। দ্বিতীয়ও হতে পারেননি তিনি। হেরে গিয়ে একবারে তৃতীয় হয়েছেন তিনি। আর এরপর গোটা বাংলাদেশে নেমে এসেছিল শোকের ছায়া।

কারণ এটাই প্রথম কোন বাংলাদেশি যুবক ভারতের এত বড় একটি অনুষ্ঠানে এতদূর পর্যন্ত যেতে পারল। নোবেলের গান শুনে অনেকেই মুগ্ধ হয়েছেন, অনেকেই ভেবেছিলেন নোবেলই এবার প্রথম পুরস্কার পাবে। কিন্তু সে স্বপ্ন আর পূরণ হয়নি। এই অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে নোবেল অনেক নামও কামিয়েছেন। এমনকি তিনি এতটাই নাম কামিয়েছেন যে, এবার তিনি বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত বদলাতে চাইছেন। ওনার কাছে এখন আর রবীন্দ্রনাথ এর লেখা জাতীয় সংগীত পোষাচ্ছে না। ওনার এই মন্তব্যের সমর্থনও করেছে অনেকেই। আবার ওনার এই মন্তব্য ঘিরে সমালোচনার ঝড়ও বয়ে গেছে। তবে নোবেল এসব নিয়ে মাথা ঘামাতে চান না। তিনি এখন আগামী দিনের জন্য ভাবছেন।

তিনি এবার ওর থেকেও বড় কিছু প্রচেষ্টা করে হলিউড এর মেগা সিঙ্গার লেডি গাগা এর সাথে গান করার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন। ওনার ভক্তরাও এই কথাকে সন্মান জানিয়েছেন। তবে ওনার ভক্তদের মধ্যে একজন এমন এক কাজ করেছেন, সেটা নিয়ে এখন জোর চর্চা হচ্ছে বাংলাদেশে। বাংলাদেশের বরিশালের বাসিন্দা নোবেলর সমর্থনে নেমে গোটা দেশের মানুষের প্রশংসা অর্জন করে নিলেন।

বরিশালের বাসিন্দা মোঃ জুলফিকার এবার নোবেলকে সারেগামাপা এর খেতাব পাইয়ে দিতে আমরণ অনশনে বসলেন। জুলফিকারের মতে, জি বাংলা ইচ্ছে করে নোবেলকে হারিয়েছে। আর যতদিন জি বাংলা নোবেলকে তাঁর প্রাপ্ত সন্মান না ফিরিয়ে দিচ্ছে, ততদিন তিনি আর অন্ন গ্রহণ করবেন না বলে জানিয়েছেন।

Related Articles