অর্বিটার থেকে ল্যান্ডারে প্রেরণ করা হচ্ছে সংকেত, বিজ্ঞানীদের চেষ্টা সফল হলে যে কোন সময় হতে পারে সংযোগ স্থাপন।

ইসরো (ISRO) চাঁদে বিক্রম ল্যান্ডারের অবস্থান সম্পর্কে জানতে পেরেছে। অরবিটার একটি থার্মাল ইমেজ ক্যামেরা দিয়ে তার ছবিটি নিয়েছে। তবে ল্যান্ডারের সাথে এখনও কোনও যোগাযোগ স্থাপন হয়নি। আরও জানা গেছে যে অবতরণের স্থির জায়গা থেকে বিক্রম ল্যান্ডার 500 মিটার দূরে। চন্দ্রায়ণ -২ এর কক্ষপথে লাগানো অপটিক্যাল হাই রেজোলিউশন ক্যামেরা (OHRC) বিক্রম ল্যান্ডারের ছবি তুলেছে। যার পর থেকে বিজ্ঞানীদের মনে মিশনকে ১০০% পূর্ন করার একটা বড়ো আশা জেগে উঠেছে।

এখন ইসরো বৈজ্ঞানিক অর্বিটারের মাধ্যমে বিক্রম ল্যান্ডারের কাছে একটি বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করছে যাতে তার যোগাযোগ ব্যবস্থা চালু করা যায়।  ইসরো’র বিশ্বস্ত সূত্র  বলেছে, বেঙ্গালুরুতে ইসরো কেন্দ্র থেকে নিয়মিত বিক্রম ল্যান্ডার এবং অরবিটারকে একটি বার্তা পাঠানো হচ্ছে যাতে যোগাযোগ শুরু করা যায়। ইসরো প্রধান কে সিভান জানিয়েছেন যে আমরা বিক্রম ল্যান্ডার সম্পর্কে জানতে পেরেছি। ল্যান্ডারকে চাঁদের পৃষ্ঠে দেখা গেছে। অরবিটারটি ল্যান্ডারের একটি থার্মাল ছবি তুলেছে। তবে এখনও কোনও যোগাযোগ স্থাপন করা হয়নি। আমরা যোগাযোগের চেষ্টা করছি।

জানিয়ে দি, ISRO টিম ল্যান্ডারের সাথে সংযোগ করার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করছে। আর যত সময় যাবে সংযোগ স্থাপন করা কঠিন হবে বলে মত প্রকাশ করেছেন এক বিজ্ঞানী। তাই ISRO পুরো টিম কাজে নেমেছে ল্যান্ডারের সাথে কমিউনিকেশন অন করতে। আশা করা হচ্ছে যদি কমিউনিকেশন অন হয় তাহলে সম্প্রতি কিছু সময়ের মধ্যে হওয়ার একটা বড়ো সম্ভবনা রয়েছে। ইসরো প্রধান আরও বলেছিলেন, বিক্রম চাঁদের পৃষ্ঠে কীভাবে আছে তা চিত্র থেকে এখনও পরিষ্কার হয়নি। চন্দ্রায়ণ -২ এর অর্বিটারে লাগানো অপটিক্যাল হাই রেজোলিউশন ক্যামেরা (OHRC) বিক্রম ল্যান্ডার এর থার্মাল ছবি তুলেছে। ভবিষ্যতে বিক্রম ল্যান্ডার এবং প্রজ্ঞান রোভার কী পরিমাণ কাজ করবেন তা তথ্য বিশ্লেষণের পরেই জানা যাবে।

Related Articles