তিহার জেলে প্রথম রাত কাটালেন চিদম্বরম, মশার কামড় খেয়ে ঘটল ঘুমে বাধা।

কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা ও প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরম আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় আরও একটি বড় ধাক্কা পেয়েছেন। তাকে আরও ১৪ দিনের জন্য বিচারিক হেফাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। ১৫ দিনের সিবিআই হেফাজতে কাটানোর পরে আদালত তাকে এখন ১৪ দিনের বিচারিক হেফাজতে প্রেরণ করেছে। রাউজ অ্যাভিনিউ কোর্টের বিচারক অজয় ​​কুমার কুহর, চিদাম্বরমের উকিল কপিল সিবালের যুক্তিকে খারিজ করে চিদাম্বরমকর হেফাজতে প্রেরণ করেছেন। জানিয়ে দি যে চিদাম্বরমকে এখন ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিহার জেলে থাকতে হবে। তার জন্য সেখানে একটি পৃথক কক্ষের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

জানিয়ে দি  সূত্র অনুযায়ী জানা গেছে যে চিদাম্বরম কারাগারে সিমেন্টের মেঝেতে রাত কাটিয়েছেন, তাকে  একটি দড়ি ও চাদর দেওয়ার ব্যবস্থাও করা হয়েছিল। রাতের খাবারের সময় তিনি ডাল, রুটি এবং শাকসব্জী খেয়েছেন। কারাগারে তাঁর রুটিনটি সকাল ছয়টায় শুরু হয়েছিল, সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরে তিনি অন্যান্য বন্দীদের জন্য যে কাজ থাকে তিনিও একই কাজ করেছিলেন। দিল্লি পুলিশ রাত ৮ টায় তাকে কারাগারে নিয়ে যায়। কারাগারে ভর্তির পরে তার মেডিকেল চেকআপ করা হয়েছিল। এর পরে তাকে সাত নম্বর কারাগারে রাখা হয়েছিল। সুরক্ষার জন্য তার ঘরের বাইরে সিসিটিভি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে। ওনার জন্য ওয়েস্টার্ন টয়লেট ও ওষুধের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

চিদাম্বরমের রুটিন হলো:
তাকে প্রতিদিন সকাল সাতটায় উঠতে হবে এবং চিদাম্বরমকে সকাল আটটায় নাস্তা দেওয়া হবে। সকাল ৯ টা থেকে ১২ টার মধ্যে তিনি কারাগারে বিভিন্ন কাজে অংশ নিতে পারবেন। সেই সময়ে, তিনি একটি সংবাদপত্র বা বই পড়তে পারবেন। এরপর ১টা বাজলে তিনি  খাবার পাবেন। তারপরে তাকে আবার লক করা হবে এবং তারপরে আবার ৩টে বাজলে তাকে বাইরে আনা হবে। তিনি ক্যাম্পাসে হেঁটে যেতে পারেন বা
লাইব্রেরিতে যেতে পারেন। তারপরে সন্ধ্যা ৬টার পরে তাকে রাতের খাবার পরিবেশন করা হবে। তবে উনাকে রাতে মশা কামড়ে জ্বালাতন করেছে বলেছে দাবি উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

Related Articles