একমাসের মধ্যেই দমে গেলো পাকিস্তান! বাধ্য হল ভারত থেকে জীবনদায়ী ওষুধ আমদানি করতে

মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার পর উন্মাদ পাকিস্তান ভারতের সাথে সমস্ত ব্যাবসা বন্ধ করে দেয়। কিন্তু পাকিস্তান তাঁদের এই সিদ্ধান্তের সাথে বেশিদিন মানিয়ে নিয়ে চলতে পারছে না। তাঁদের সমস্ত ঔদ্ধত্য কয়েকদিনের মধ্যে উবে যায়। জীবনদায়ী ওষুধের দাম বাড়ার ফলে পাকিস্তান মাথা নত করে ভারতের সাথে আবার ব্যাবসা শুরু করে দিয়েছে। শোনা যাচ্ছে যে, পাকিস্তানের ইমরান খান সরকার ভারতে তৈরি জীবনদায়ী ওষুধ আমদানি করার অনুমতি দিয়ে দিয়েছে।

জিয়ো টিভি এর রিপোর্ট অনুযায়ী, সোমবার পাকিস্তানের বাণিজ্য মন্ত্রক ভারতের তৈরি ওষুধ আমদানির জন্য অনুমতি দিয়ে দিয়েছে। আর এই নিয়ে একটি সাংবিধানিক নিয়ম জারি করেছে। পাকিস্তান প্রচুর পরিমাণে ভারতীয় ওষুধ তাঁদের দেশে আমদানি করে। জীবনদায়ী ওষুধের জন্য পাকিস্তান বরাবর ভারতের উপর ভরসা করে থাকে। একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, পাকিস্তান বিগত ১৬ মাসে ভারতের থেকে ২৫০ কোটি টাকারও বেশি জলাতঙ্ক রোধী ওষুধ এবং অ্যান্টি ভেনম টীকা আমদানি করেছে।

দুই মাসে আগে এই সমন্ধ্যে পাকিস্তানি সংবাদ মাধ্যম ডনে একটি রিপোর্ট ছাপা হয়েছিল। রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতের সাথে ব্যাবসা বন্ধ হওয়ার পর শিল্প সংস্থা এম্প্লায়ার্স ফেডারেশন অফ পাকিস্তান (EFP) বলেছিল, ‘ ভারতের থেকে কাঁচা মাল অথবা প্রস্তুত পণ্য রুপে আমদানি হওয়া জীবনরক্ষক ওষুধ বাজার থেকে সমাপ্ত হতে পারে। আর এটা দেখে যতদিন না বিকল্প ব্যাবস্থার পাওয়া যাচ্ছে, ততদিন আমদানিতে নিষেধাজ্ঞায় কিছুটা ঢিল দেওয়া উচিত।” এবার যখন পাকিস্তানের কাছে কোন বিকল্প বেঁচে নেই, তখন তাঁরা আবার ভারত থেকে জীবনদায়ী ওষুধ আমদানি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Related Articles