বড় খবর! এয়ার স্ট্রাইকের বদলা নিতে এসে শেষমেশ নিজেদের প্রান বাঁচাতে ল্যাজ গুটিয়ে পালালো পাকিস্তানী বায়ুসেনা।

আজ ভোর রাতে ভারতীয় বায়ুসেনা পাকিস্তানের উপর এয়ার স্ট্রাইক আনে এবং তার ফলে প্রচুর পরিমাণে ক্ষয়ক্ষতি হয় পাকিস্তানের। তাদের আওতাভুক্ত জঙ্গী সংগঠন গুলি প্রায় নিঃস্ব হয়ে গিয়েছে। ভারতীয় বায়ুসেনা যখন পাকিস্তানের ভেতর ঢুকে জঙ্গি ঘাঁটি গুলি ধ্বংস করা শুরু করে সেই সময় ভারতীয় সেনাদের আটকানোর জন্য পাকিস্তানি বায়ুসেনা ব্যবহার করে তাদের F-16 ফাইটার জেট। কিন্তু পাকিস্তানের এই ফাইটার জেট ভারতীয় বায়ু সেনার কাছে টিকতেও পারে নি। পাকিস্তানের F-16 জেট নস্যি বলে প্রমাণিত হল ভারতীয় বায়ু সেনার কাছে।

পাকিস্তানের উপর ভারতের করা এয়ার স্ট্রাইকের বদলা নিতে পাকিস্তানী বায়ুসেনা এই F-16 বিমান নিয়ে এসেছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নিজেদের জীবন বাঁচাতে ল্যাজ গুটিয়ে পালাতে বাধ্য হল তারা। বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে এই অভিযান কে সফল করে পাকিস্তানী বায়ু সেনাকে পালাতে বাধ্য করে ওয়স্টান এয়ার কমান্ড।

আগেই প্রমাণিত হয়ে গিয়েছে যে, পাকিস্তানী এয়ার ফোর্স ভারতীয় এয়ার ডিফেন্সের কাছে অত্যন্ত দুর্বল। ভারত আগেই বুঝিয়ে দিয়েছে যে, ভারত ইচ্ছা করলেই এক নিমিষে উড়িয়ে দিতে পারে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সহ তার পুরো আবাসনটিকে। আর এরপর থেকেই পাকিস্তানের শুরু হয়ে গিয়েছে চরম ভয়। এখন ভয় পেয়ে পাকিস্তান হটলাইনের সাহায্যে কথা বলছে চীনের সাথে।

পুলওয়ামায় কাপুরুষোচিত জঙ্গি হামলার পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী পূর্ন স্বাধীনতা দিয়েছিল সেনাবাহিনীকে। শুধু অপেক্ষা ছিল সঠিক সময়ের। হতে পারে ভারতের কোনো নেতা বা মন্ত্রী পাকিস্তানের মন্ত্ৰীদের মত পরমাণু হামলার হুমকি দেয় নি। কিন্তু ভারতের প্রত্যেক মানুষের সাথে সাথে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে প্রত্যেক নেতার মধ্যে জ্বলছিল বদলার আগুন। সেই জন্যই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেও রেখেছিল যে, সেনাদের রক্ত বিফলে যাবে না এই জঙ্গি হামলায় উপযুক্ত জবাব দেবে ভারত। আর অবশেষে আজ এল সেই দিন। ভারতের বদলার আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেল পাকিস্তান।
#অগ্নিপুত্র

Related Articles