পাকিস্তানী অভিনেত্রীর দাবি ‘পাকিস্তানী সেনা দেশের লজ্জা, ভারতের কাছে ফের একবার মার খাবে পাকিস্তান।”

পাকিস্তান! এই পাকিস্তান হলো ভারতবর্ষের চিরশত্রু, এই পাকিস্তানের প্রধান কাজ হলো ভারতের ক্ষতি করা তারা দেশের উন্নয়নের থেকে বেশি চেষ্টা করে ভারতের ক্ষতি করাতে। নিজেদের দেশের কোন রকম উন্নয়ন করতে পারেনি পাকিস্তান সরকার তাই তারা সব সময় চাই আমাদের তো উন্নতি হয়নি ভারতকে সুখে থাকতে দেবো না। সেই জন্য তারা বারে বারে ভারতকে টুকরো টুকরো করে ভাঙার চেষ্টা করে অর্থাৎ ভারত থেকে ভূস্বর্গ কাশ্মীর কে কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করে, কিন্তু পাকিস্তানের দুঃখের বিষয় তারা এই কাজে সফল হতে পারছে না। বারবার ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা এবং সেনাবাহিনী পাকিস্তানের সমস্ত চেষ্টাকে ব্যর্থ করে দিচ্ছে।

এই পাকিস্তান নানারকম উপায় অবলম্বন করেন ভারতকে শায়েস্তা করার জন্য যেমন তারা বারে বারে চাই ভারতে জঙ্গি হামলা করাতে। তাই তারা নিজেদের সীমান্তে আশ্রয় দেয় জঙ্গিদের এবং ভারতে ঢুকতে সাহায্য করে। অপরদিকে তারা অনেক সময় সীমা লংঘন করে ভারতীয় সেনাবাহিনীর ওপর গুলি চালাতে শুরু করে। এছাড়াও তারা ভারতবর্ষের মুসলিম যুবকদের ধর্মের ভিত্তিতে বিভক্ত করে ভারতের বিরুদ্ধে চড়াও হওয়ার জন্য ব্রেন ওয়াশ করে থাকে। কিন্তু এত কিছু করার পরেও তারা আটকে যাচ্ছে ভারতীয় প্রশাসনের কাছে ভারতের ক্ষতি করতে পারছে না কারণ ভারতীয় প্রশাসন কে ভেদ করে ঢোকা সম্ভব নয় পাকিস্তানের।

পাকিস্তান বারে বারে ভারতবর্ষকে ভাঙ্গার চেষ্টা করলেও এই মুহূর্তে মোদি সরকারের চাপে পাকিস্তানের এমন অবস্থা হয়েছে যে তারা এখন নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য ক্রমাগত সংগ্রাম করে চলেছে। পাকিস্তানের কি রণনীতি রয়েছে কাশ্মীর নিয়ে? সেই ব্যাপারে এবার পাকিস্তান সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন পাকিস্তানেরই বিশিষ্ট অভিনেত্রী ইমাম মজরি।

এই মুহূর্তে পাকিস্তান নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য লড়াই করছে এবং অস্তিত্বের জন্য পাকিস্তান সরকারের ওপর চাপ রয়েছে এর মূল কারণ হল পাকিস্তানের দু পাশে অবস্থিত একদিকে বেলুচিস্তান অপরদিকে সিন্ধু প্রদেশ তারা আলাদা দেশ চাইছে। তারা পাকিস্তান সরকারের হাত থেকে মুক্তি চাই। অপরদিকে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সেই দেশের সাধারন জনগন কারণ পাকিস্তানি সেনাবাহিনী দেশের সরকারের কথা ঠিকমত শোনে না এবং বারেবারে বীজ কারনে ভারতের সীমা লঙ্গন করে ভারতীয় সেনাবাহিনীর উপর গুলি চালায় যেটা সেদেশের জনগণ মেনে নিতে পারছে না। আর সেই জন্যই পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর ওপর ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন দেশের জনগণ। আর সবচেয়ে বড় কথা এটাই যে ভারত সরকারের চাপে এখন পাকিস্তানের এতটাই খারাপ অবস্থা অর্থনৈতিক দিক দিয়ে যে এই সমস্ত পরিস্থিতির মোকাবেলা করার ক্ষমতা নেই পাকিস্তান সরকারের।

সম্প্রতি পাকিস্তানের এক অভিনেত্রী ইমাম মজুরি এই বিষয়ে মুখ খুলেছেন। উনি বলেছেন যে পাকিস্তানি আর্মি হল বিশ্বের সবথেকে খারাপ আর্মি কারণ পাকিস্তান আর্মি  কাশ্মীরের পরিস্থিতির জন্য দায়ী। পাকিস্তানি আর্মি বিনা কারণে ইন্ডিয়ান আর্মির উপর গুলি চালায় এবং কাশ্মীর উত্তেজনা সৃষ্টি করে। তার কথায় পাকিস্তানি আর্মিরা বিনা কারণে এসব করে এতে তাদের কোন লাভ হয় না বরং লাভ জঙ্গিগোষ্ঠী গুলির।

এছাড়াও তিনি একটি ভিডিও প্রকাশ করে পাকিস্তানি আর্মি এবং জঙ্গিদের মধ্যে টাকা আদান প্রদানের দিকটিও তুলে ধরেছেন। উনি বলেছেন যে এত বাজে আর্মি সংগঠন আর কোনো দেশে নেই পাকিস্তানী আর্মির একবার ইন্ডিয়ান আর্মির কাছে মার খাবে এবং তার পরে তাদের উচিত শিক্ষা হবে। এছাড়াও তিনি কাশ্মীরের পরিস্থিতির জন্য পাকিস্তান সরকার এবং পাকিস্তানী আর্মি কে দায়ী করেছেন তার কথাই পাকিস্তানি আর্মিরা ক্রমাগত কাশ্মীরের যুবকদের এবং স্থানীয় যুবকদের ভুল বুঝিয়েছেন এবং ভারতবর্ষের বিরুদ্ধে সরব হতে বাধ্য করছে। পাকিস্তানি আর্মিরা মুসলিম যুবকদের ভারত বিদ্বেষী এবং হিন্দু বিদ্বেষী করে তুলছে এর পেছনে সরাসরি জঙ্গি সংগঠনের মদত রয়েছে বলেও তিনি জানিয়েছেন।
#অগ্নিপুত্র

Related Articles