মমতা ব্যানার্জীর দেওয়া অফার ফিরিয়ে দিলেন প্রশান্ত কিশোর!

‘বডিগার্ডের (security) প্রয়োজন নেই। মানুষের মধ্যে থেকে মানুষের জন্য কাজ করি। কিছুই হবে না আমার।’- বললেন প্রশান্ত কিশোর (Prashant Kisho)। ২০২১ বিধানসভা ও আসন্ন পুরসভা ভোটের জন্য তাঁকে অতিরিক্ত সুরক্ষার ব্যবস্থা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তাঁর উপর হামলা হতে পারে এমনটা ভেবে তাঁকে এই অতিরিক্ত সুরক্ষা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য  সরকার।

লোকসভা ভোটের পরই প্রশান্ত কিশোরকে তৃণমূলের ভোটকৌশলী হিসাবে নিয়োগ করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আসন্ন বিধানসভা ও আসন্ন পুরসভা ভোটে তাঁর গুরুত্বপূর্ণ্য ভূমিকা রয়েছে। সেই জন্য তাঁকে জেড ক্যাটাগরির নিরাপত্তা দেওয়া হয়। তাঁর সঙ্গে এবার থেকে থাকবে  কনভয় ও নিরাপত্তারক্ষী। গোয়েন্দাদের কাছ থেকে গোপন সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী তাঁর উপর হামলা হতে পারে ভেবে এই নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী প্রদত্ত এই নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিতে রাজি নন প্রশান্ত কিশোর। তিনি বলেন এই অতিরিক্ত সুরক্ষা বিষয়ে তাঁকে আগে থাকতে কিছু বলা হয়নি। তবে তাঁর এই নিরাপত্তার প্রয়োজন নেই। তাঁর জীবন নিয়ে সংশয় প্রকাশে তিনি বলেন,বডিগার্ড ছাড়াই তিনি সর্বদা গ্রামাঞ্চলে ঘুরে বেড়াতে পারেন। তাঁর কোন ক্ষতি হবে না। তাই এই অতিরিক্ত সুরক্ষার প্রয়োজন নেই।

তিনি আরও বলেন, একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসাবে নাগরিকত্ব সংশোধন আইন, জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধক এবং জাতীয় নাগরিক পঞ্জিকরণের বিরোধিতায় তিনি সরব থাকবেন। এই কাজের জন্য তাঁর কোন নিরাপত্তার দরকার নেই। তিনি মনে করেন, যে মানুষের পক্ষে তিনি রয়েছেন, সেই মানুষই তাঁকে রক্ষা করবেন। তিনি বলেন, ‘ আজ পর্যন্ত আমাকে কোনও হুমকির মুখোমুখি হতে হয়নি। তাই আমার কোনও ধরনের সুরক্ষা ব্যবস্থার দরকার নেই বলে মনে করি। আমি সর্বদা জনগণের পক্ষে কাজ করছি। তাই আলাদা করে সুরক্ষার কোন প্রয়োজন নেই’।