চার্চকে মসজিদ বানিয়েছিলেন এরদোগান, আর মসজিদকে শৌচালয় বানালেন জিনপিং!

কিছুদিন আগে তুর্কির রাষ্ট্রপতি এরদোগান (Recep Tayyip Erdoğan) শতাব্দী প্রাচীন এক চার্চকে মসজিদ বানিয়েছিলেন। কিন্তু এবার চীনের রাষ্ট্রপতি জিনপিং (Xi Jinping) চীনের এক মসজিদকে শৌচাগারে পরিণত করলেন।  চীনের রাষ্ট্রপতি জিনপিং এর শাসনে কিভাবে উইঘুর মুসলিমদের উপর অত্যাচার করা হয়েছে তা পুরো বিশ্বের জানা। উইঘুরদের উপর অত্যাচার করার চীনের বিরুদ্ধে পুরো বিশ্বে করোনা ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। জিনপিং এর নেতৃত্বে চীনে বহু জায়গায় মসজিদ ভেঙে ফেলা হয়েছিল বলেও রিপোর্ট সামনে এসেছিল।

চীন তার উত্তর পশ্চিম প্রান্তে পাঁচ হাজারের বেশি মসজিদ ভেঙেছে বলে অভিযোগ উঠেছিল। তবে এখন চীনের শাসন ব্যাবস্থার উপর নতুন অভিযোগ সামনে এসেছে। অভিযোগ উঠেছে যে চীনের প্রশাসন বহু মসজিদের জায়গায় সার্বজনিক শৌচালয় বানিয়ে দিচ্ছে। সম্প্রতি শিনজিয়াং এর এক গ্রামে এক মসজিদের স্থানকে শৌচালয়ে পরিণত করা হয়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। চীনের প্রশাসন মসজিদের স্থানে ফ্রি শৌচালয় বানিয়ে দিয়েছে বলে সূত্রের খবর।

জানিয়ে দি মসজিদটির আগে নাম ছিল টোকুল ।মসজিদ,যা এখন শৌচালয় বানিয়ে দেওয়া হয়েছে। চীনের সরকার সেখানে মল মূত্র ত্যাগের স্থান বানিয়েছে। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতেও অনেকে মুখর হয়েছেন। মসজিদটি জিনজিয়াংয়ের উত্তর-পশ্চিমে অতুশ শহরের সুনতাগ গ্রামে ছিল।

চীনের সরকারের নির্দেশের পর মসজিদের স্থানকে প্রশাসন এমনভাবে ব্যাবহার করার সিধান্ত নিয়েছে। প্রসঙ্গত, জিনপিং সরকারের আমলে চিনে বহু মুসলিমকে জোরপূর্বক ক্যাম্পে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং অনেক পরিবারকে অসহায় অবস্থায় ফেলে রেখেছে।