মমতা না চাইলেও রাজ্যে আসবে শ্রমিক ট্রেন, পরিস্কার জানিয়ে দিলো অমিত শাহ এর দফতর

অনেক কয়েকটি রাজ্য শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেন (Shramik Special Train) চালানোর অনুমতি না দেওয়ার জন্য রেলওয়ে (Indian Railways) জানিয়ে দিলো যে, এবার থেকে আর রাজ্যের অনুমতি নেওয়া হবে না। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রালয়ের তরফ থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরাতে ট্রেন চালানোর খাতিরে রেলের জন্য স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং পদ্ধতি জারি করেছে।

রেলওয়ের মুখপাত্র রাজেশ বাজপেয়ী জানিয়েছেন, শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনের চালানোর জন্য রাজ্যের অনুমতি নেওয়ার আর দরকার নেই। নতুন স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং পদ্ধতির সেই রাজ্যের অনুমতি নেওয়ার আর দরকার নেই, যেখানে ট্রেনের যাত্রা সমাপ্ত হচ্ছে।

আপনাদের জানিয়ে দিই, রেল মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল সম্প্রতি একটি বয়ানে বলেছিলেন যে, পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য চালু করা শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনের জন্য অনেক রাজ্য অনুমতি দিচ্ছে না। আর এই কারণে বেশি পরিমাণে ট্রেন চালানো সম্ভব হচ্ছে না।

কেন্দ্র সরকার লকডাউনের মধ্যে দেশের বিভিন্ন অংশে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি পৌঁছে দিতে স্পেশ্যাল ট্রেনের পরিষেবা শুরু করেছে। এখনো পর্যন্ত এই ট্রেন চালানোর জন্য রাজ্য গুলোর থেকে অনুমতি নেওয়া হত। পশ্চিমবঙ্গ সমেত অনেক রাজ্য শ্রমিক ট্রেন চালানোর জন্য অনুমতি দিতে টালবাহানা করে এসেছে।

রেল মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল কিছুদিন আগেই পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে বলেছিলেন যে, তাদের বাড়ি ফেরাতে ১ হাজার ২০০ টি ট্রেন তৈরি আছে। কিন্তু অনেক রাজ্যই এই ট্রেন গুলো চালাতে অনুমতি দিচ্ছে না।

গোয়েল বৃহস্পতিবার বার বলেছিলেন, ১ হাজার ২০০ ট্রেন অন্য কাজ গুলো থেকে সরিয়ে শুধুমাত্র পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরানোর জন্য নিযুক্ত করা হয়েছে। কিনতি অনেক রাজ্য বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গ, রাজস্থান, ছত্তিসগড়, ঝাড়খণ্ড থেকে অনেক কম ট্রেনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।