কাশ্মীরে ১৮০ কিমি বর্ডারে অ্যাক্টিভ করে দেওয়া হল গ্রাউন্ড সেন্সর, আশেপাশে আসলেই মরবে পাকিস্তান

0
245

মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ পাঞ্জাবের সীমান্তে ড্রোন ব্যাবহার করে হাতিয়ার পাচার এবং জম্মু কাশ্মীরে অনুপ্রবেশের আশঙ্কার মধ্যে LOC আর ইন্টার ন্যাশানাল বর্ডারে হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। কাঠুয়া থেকে জম্মু পর্যন্ত ১৮০ কিমি লম্বা ভারত পাকিস্তান আন্তর্জাতিক সীমান্তে বিএসএফ অ্যান্টি টানেল অভিযান চালাচ্ছে।

এই অভিযান এখন লাগাতার জারি থাকবে। পাকিস্তান ঘেঁষা সীমান্তে সেনা আর বিএসএফ মোতায়েন জওয়ানদের আরও বেশি করে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ড্রোন দিয়ে হাতিয়ার সাপ্লাই এর আশঙ্কার মধ্যে সুরক্ষায় বজ্র আঁটুনি করার জন্য মাটি থেকে আকাশ পর্যন্ত বিশেষ ভাবে নজর রাখা হচ্ছে।

অ্যান্টি টানেল অভিযান অনুযায়ী, বিএসএফ আধুনিক হাতিয়ার আর উপকরণ এর সাথে ফেন্সিং এর কাছে থাকা ঘন ঝোপঝাড় কেটে সাফ করে দিয়েছে। থ্রি টায়ার ফেন্সিং এর পাশে থাকা এলাকা গুলোর আশেপাশে সাফাই অভিযান চালানো হয়েছে। বিএসএফ এর এক বরিষ্ঠ অয়াধিকারিক জানান, পাকিস্তান টানেল দিয়ে ভারতে ঢোকার চেষ্টা করতে পারে। আর এই জন্যই এই অপারেশন লঞ্চ করা হয়েছে।

কাঠুয়া বর্ডার পর্যন্ত এই অপারেশন চালানো হচ্ছে। শোনা যাচ্ছে যে, আরএস পুরা সেক্টরে পাকিস্তানি অনুপ্রবেশকারীকে হাতেনাতে ধরার পর থেকে অ্যান্টি টানেল অভিযান চালানো হচ্ছে। আর এখন এই অভিযানকে আরও বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। বিএসএফ গ্রাউন্ডের সেন্সর সক্রিয় করে দিয়েছে। এই বছরের জুলাই মাসে বিএসএফ পাঞ্জাব আর জম্মু কাশ্মীরে বর্ডার অভিযান শুরু করেছিল। সেনা আর বিএসএফ বর্ডারে রেড অ্যালার্ট ঘোষণা করেছে। কুপওয়ারা, রাজৌরি, কাঠুয়া, বারামুলা, পুঞ্ছ, সাম্বা আর জম্মুর জেলা গুলোর এলওসি আর বর্ডারে সুরক্ষা দ্বিগুণ করে দেওয়া হয়েছে। সীমান্তে ড্রোন ব্যাবহারের আশঙ্কার জন্য চারিদিকে প্রখর নজর রাখা হচ্ছে।