অজানা তথ্য

কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার প্রতিবাদে, সমঝোতা এক্সপ্রেসের কামরা হেগে ভরিয়ে দিলো পাক সেনা

আমরা সকলেই জানি যে জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার পর গোটা দেশে কেমন ভাবে রাজনীতি হচ্ছে। আরেকদিকে আমাদের প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানও ভারতের উপর খুব ক্ষেপে রয়েছে এই ৩৭০ ধারা নিয়ে। এমনকি পাকিস্তান থেকে বারবার যুদ্ধেরও হুমকি দেওয়া হচ্ছিল ভারতকে। এছাড়াও পাকিস্তান বিভিন্ন মুসলিম দেশ গুলোর কাছে ভারতের নামে নালিশ ও জানাচ্ছে। এমনকি তাঁরা রাষ্ট্রপুঞ্জে গিয়েও ভারতের নামে নালিশ জানিয়ে কাশ্মীর দখলের স্বপ্ন দেখছে। ইতিমধ্যে কয়েকটি মুসলিম দেশের সাথে হাতও মিলিয়ে নিয়েছে পাকিস্তান।

আবার ভারতকে টাইট দেওয়ার জন্য পাকিস্তান ভারতের সাথে ব্যাবসা বন্ধ করে দিয়েছে। পাকিস্তান পরিস্কার ভাবে জানিয়ে দিয়েছে যে, তাঁরা কোনরকম সামগ্রী আর ভারতে পাঠাবে না। পাকিস্তান ভারতের মানুষকে না খাইয়ে মারার প্ল্যান করছে বলে পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সুত্রের খবর। তবে পাকিস্তানের গোয়েন্দা বিভাগ আইএসআই থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয়েছে যে, পাকিস্তান ভারতে সামগ্রী না পাঠালেও তাঁরা জঙ্গি, জঙ্গিদের সাথে বোমা, হাতিয়ার এ সমস্ত জিনিষ ভারতে চোরা পথে পাঠাবেই। আবার পাকিস্তান থেকে এও বলা হয়েছে যে, পাকিস্তান কিছু পাঠাক আর না পাঠাক তাঁদের দেশে কেউ অসুস্থ হলে তাঁদের ভারতে চিকিৎসার জন্য পাঠাবে।

তবে পাকিস্তান আরেকটি কড়া পদক্ষেপ নিয়ে সমস্ত রকম বলিউডের সিনেমা তাঁদের দেশে ব্যান করে দিয়েছে। তাঁর মানে এই যে, এবার থেকে আর ভারতের কোন বলিউড সিনেমার পাইরসি সিডি/ডিভিডি পাকিস্তানে আর পাওয়া যাবেনা। এমনিতেই পাকিস্তানের আর্থিক অবস্থা শোচনীয়, আর তাঁর মধ্যে ওদের দেশের সিনেমা ওদের দেশের মানুষই দেখেনা। আর এরপর ভারতের সিনেমা ওই দেশে বন্ধ করে পাকিস্তান থেকে সবরকম সিনেমাই বন্ধ করার কাজ করছে।

বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের ইমরান খান সরকার আরেকটি পদক্ষেপ নিয়ে পাকিস্তান থেকে ভারতের ট্রেন নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আর এই জন্যই পাকিস্তান থেকে ভারতে আসা সমঝোতা এক্সপ্রেস পাকিস্তানেই আটকে যায়। কারণ ওই ট্রেনের চালক ট্রেন নিয়ে আর ভারতে আসতে চাননি। শেষে ভারত থেকে ট্রেনের ইঞ্জিন আর একজন লোকো পাইলট আর দুই কর্মী গিয়ে পাকিস্তানে আটকে থাকা ভারতের ট্রেন ভারতে ফিরিয়ে নিয়ে আসে।

তবে ওই ট্রেন ভারতে ফিরিয়ে আনতেই সবার মাথায় হাত পড়ে যায়। ট্রেন ভারতে আসতেই দেখা যায়, ভারতীয়রা দৌড়ে দৌড়ে ট্রেন থেকে নামছে, তাঁদের মধ্যে কয়েকজন তো বমিও করে দিয়েছে। ভারতীয় রেলের স্টাফেরা ট্রেনে উঠে ভিতরকার অবস্থা দেখে অবাক হয়ে যান। একজন কর্মী তো ট্রেনের মধ্যেই অজ্ঞান হয়ে যান। পরে ওনাকে চিকিৎসার জন্য রেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রাথমিক চিকিৎসার পর সুরেশ নামের ওই কর্মীকে ছেড়েও দেওয়া হয়।

রেল কর্মীদের থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী, পাকিস্তান থেকে ভারতে আসা ট্রেনের প্রতিটি কামরায় ‘গু” য়ে ভর্তি দেখা যায়। ট্রেনের যাত্রীদের জিজ্ঞাসা করলে ওনারা জানান। ট্রেন যখন ওয়াঘা স্টেশনে আটকে ছিল, তখন ট্রেনে পাকিস্তানের সেনারা উঠে হাগতে শুরু করে দেয়। তাঁদের কাছে এর কারণ জিজ্ঞাসা করলে তাঁরা জানায়, ‘কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার প্রতিবাদে এমন কাজ করছে তাঁরা।” ট্রেনের এক যাত্রী এই ঘটনার ভিডিও রেকর্ডিং করলে, তাঁর হাত থেকে মোবাইল কেড়ে গু-ইয়ের মধ্যে ফেলে দেয় পাক সেনার জওয়ান। এরপর পাকিস্তানের এক সেনা অফিসার ট্রেনে উঠে হেগে দিয়ে অবশেষে বলে যান ‘ইনশাল্লাহ বয়েজ প্লেয়েড ওয়েল।”

 

Close