৫ বছর বয়সেই বিশ্বরেকর্ড পিচ্চি মেয়ের, উল্টো হয়ে তিন মিনিটে ছুঁড়ল ১০০ এর বেশি তীর

ভারতে (india) প্রতিভার কোনো অভাব নেই, ভারতের প্রতিটি প্রান্তে লালিত হচ্ছে এক একটি দুরন্ত প্রতিভা। যারা প্রত্যেকেই সমগ্র বিশ্বকে নিজেদের পদতলে নতজানু করতে পারে। এমনই এক প্রতিভা চেন্নাইয়ের (chennai) এক রত্তি কন্যা সঞ্জনা৷ উল্টো হয়ে ঝুলে ৫ বছর বয়সে ৩ মিনিটের খানিক বেশি সময়ে শতাধিক তীর ছুঁড়ে ‘হিউম্যান আল্টিমেট ওয়ার্ল্ড রেকর্ড’-এ নাম তুলে ফেলেছে সে।

শনিবার স্বাধীনতা দিবসের দিনই দেশকে এই সম্মান এনে দিয়েছে সে৷ সঠিক লক্ষ্যে একটি তীর ভেদ করাও যে কতখানি কঠিন যারা তীরন্দাজী করবার একদিনও চেষ্টা করেছে তারা জানে৷ কিন্তু সঞ্জনার জন্য চ্যালেঞ্জ ছিল আরো কঠিন ঐ সময়ে তার পা বাধা ছিল ওপরে, মাথা ছিল মাটির দিকে। সম্পূর্ণ উল্টো হয়ে ঝুলে সে মাত্র ৩ মিনিট ১২ সেকেন্ডে ১১১ তীর ছুঁড়েছ।

সঞ্জনার প্রশিক্ষক জানিয়েছেন, এখনো অবধি এই রেকর্ড একমাত্র সঞ্জনারই আছে। বিশ্বে আর কেউ এই কাজটি করে দেখাতে পারে নি। তারা বিষয়টি গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ড কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিতে এনে সঞ্জনাকে স্বীকৃতি দেওয়ার চেষ্টা করবেন।

সঞ্জনার বাবা জানিয়েছেন, তার স্বপ্ন সঞ্জনা অলিম্পিকের মঞ্চে দেশের হয়ে সোনা জিতুক। ২০৩২ সালের অলিম্পিকের জন্য প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে তার মেয়ে। পাশাপাশি, ১০ বছর প্রতি স্বাধীনতা দিবসে নতুন নতুন বিশ্ব রেকর্ড গড়ে বিশ্ব সভায় ভারতকে এগিয়ে দিক তার মেয়ে এমনটাই চান তিনি।

সঞ্জনাকে নিয়ে এই মুহুর্তে উচ্ছ্বসিত দেশের নেট পাড়াও। তাদের অনেকেই ছোট্ট সঞ্জনাকে শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানিয়েছেন। ইতিমধ্যেই সে পরিচিতি পেয়েছে ‘ভারতীয় যোদ্ধা’ নামে৷ সঞ্জনার সাফল্য ভারতের মুখ উজ্জ্বল করবে এই আশায় বুক বাঁধছে গোটা দেশ।