fbpx
নতুন খবর

ইডেন থেকে সরিয়ে দেওয়া হল সমস্ত পাকিস্তানী ক্রিকেটারের ছবি। আরও একবার সমগ্র বিশ্বের কাছে “দাদাগিরি” দেখালো সৌরভ গাঙ্গুলি।

“ইডেন গার্ডেন” এটি একটি ঐতিহ্যশালী ক্রিকেট স্টেডিয়াম। এই ক্রিকেট স্টেডিয়াম শুধু ভারতেই নয় বরং সারা বিশ্বে এটি বিখ্যাত। এই স্টেডিয়ামে একটা ম্যাচ খেলা অনেক ক্রিকেটারের কাছে ভাগ্যের ব্যাপার। এই স্টেডিয়ামের বিশেষত্ব হল পৃথিবীতে যত বড় বড় ক্রিকেটার আছে এবং বিশ্বকাপজয়ী যে সমস্ত অধিনায়ক আছে তাদের সকলের ছবি এই স্টেডিয়ামে সুন্দর করে লাগানো থাকে। আর তাই ধারাবাহিক ভাবে পাকিস্তানের বিশ্বকাপ জয়ী ক্রিকেটার তথা ক্যাপ্টেন ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এর ছবিও লাগানো ছিল ইডেন গার্ডেনে। কিন্তু এবার সিএবি সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে ইমরান খানের ছবি সরিয়ে দেওয়া হবে ইডেন গার্ডেন থেকে। এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সিএবি সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি। আর মহারাজের এই সিদ্ধান্ত কে বঙ্গ বিজেপির যুবমোর্চার তরফে “দাদাগিরি” হিসাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে।

পুলওয়ামায় ভয়াবহ জঙ্গি হামলায় পাকিস্তানের সরাসরি যোগসূত্র থাকার পর থেকে সারা দেশ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে। পাকিস্তানের প্রতি ধিক্কার জানিয়ে দেশের অনেক স্টেডিয়াম থেকে পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের ছবি সরিয়ে ফেলা হয়েছে। আর এবার নিজেদের মধ্যে আলোচনা করার পর ইডেন গার্ডেন থেকে সমস্ত পাক ক্রিকেটারদের ছবি সরিয়ে ফেলার সিদ্ধান্ত নিল সিএবি। সিএবি কর্তৃপক্ষ এইদিন সিদ্ধান্ত নিয়ে জানিয়েছে যে, প্রাপ্তন পাকিস্তানী ক্রিকেটার তথা বর্তমানে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ছবি সহ রামিজ রাজা এবং অন্যান্য সমস্ত পাকিস্তানী ক্রিকেটারদের ছবি সরিয়ে দেওয়া হবে।বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ শুক্রবার হুঁশিয়ারি দিয়ে পরিষ্কার ভাবে জানিয়ে দিয়েছিলেন যে, যদি তাড়াতাড়ি ইডেন গার্ডেন থেকে পাকিস্তানী ক্রিকেটারদের ছবি সরানো না হয় তাহলে ইডেনের সামনে ধর্ণায় বসবে বিজেপির যুবমোর্চা।আর দিলীপ বাবুর হুমকি অনুযায়ী শনিবার দুপুরেই বিজেপির যুবমোর্চা পৌঁছে যায় ইডেনের সামনে। যুবমোর্চা ইডেন পৌঁছালে সেখানে পুলিশ এবং বিক্ষোভকারিদের মধ্যে ধস্তাধস্তি শুরু হয়ে যায়।

এই ঘটনায় বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাজু বন্ধ্যপাধ্যায়ের সহ অন্যান্য নেতানেত্রীদের গ্রেপ্তার করা হয়।পুলওয়াময় ঘটনার পর ভারতের প্রাপ্তন ও অন্যতম সফল অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি পাকিস্তানের উপর ক্ষোভ প্রকাশ করে দাবি করেছিলেন যে, পাকিস্তানের সাথে কোনো প্রকার সম্পর্ক রাখা উচিত নয়, বাইশ গজে পাকিস্তানের সাথে সব সম্পর্ক শেষ করা উচিৎ। এমনকি উনি দাবি করেছিলেন আসন্ন ২০১৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের ম্যাচ বয়কট করা উচিৎ ভারতের।উল্লেখ্য, এর আগে কার্গিল যুদ্ধের পর পাকিস্তান সফরে গিয়ে ঘরের মাঠে পাকিস্তানকে ধুলো চটিয়ে এসেছিল সৌরভ গাঙ্গুলির নেতৃত্বাধীন ভারতীয় ক্রিকেট দল। সেই সিরিজে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ব্যাট বল হাতে একেবারে অন্য ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল দাদা কে। আর এবার ইমরান খানের ছবি ইডেন থেকে নামিয়ে দিয়ে আরও একবার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ব্যাট হাতে ছক্কা হাঁকালেন দাদা।

আর এরপরই দাদার এই সিদ্ধান্ত কে সম্মান জানিয়ে যুব মোর্চার সভাপতি দেবজিৎ সরকার বলেছেন, দাদা হলেন আমাদের সকলের প্রিয় মহারাজা, দাদার অনুপ্রেরণায় অনুপ্রাণিত হয়েছেন বহু বাঙালি তরুণ-তরুণী। ইংরেজদের বিরুদ্ধে চোখে চোখ রেখে ম্যাচ জেতা থেকে শুরু করে পাকিস্তান কে ঘরের মাটিতে বারবার সিরিজ হারিয়ে লজ্জ্বায় ফেলে দেওয়া এই সব দাদার অমর স্মৃতি। এছাড়াও উনি বলেন আজ ইমরানের ছবি নামিয়ে উনি আরও একবার বাঙালি হয়ে সমগ্র বিশ্বের কাছে “দাদাগিরি” দেখিয়ে দিলেন।

Close