চীনের শেষের শুরু! চীনের ফাইটার জেট মিসাইল দিয়ে ধ্বংস করলো তাইওয়ান

 মিডিয়া রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে যে, তাইওয়ান (Taiwan) তাঁদের বায়ু সীমান্তে প্রবেশ করা চীনের শুখোই এয়ারক্র্যাফটকে ধ্বংস করেছে। চীনের ফাইটার জেট ক্র্যাশ হয়েছে কিন্তু পাইলট সুরক্ষিত আছে বলে জানা যাচ্ছে। ক্র্যাশ হওয়া এয়ারক্র্যাফটের কয়েকটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল (Viral Video) হচ্ছে। যদিও এখনো এটা নিয়ে এখনো কোন আধিকারিক বয়ান জারি হয় নি। চীন গত মাসে বেশ কয়েকবার তাইওয়ানের জল আর বায়ু সীমান্ত অতিক্রম করার চেষ্টা করেছে। বৃহস্পতিবার চীনের একটি ফাইটার জেট তাইওয়ানের বায়ু সীমানা অতিক্রম করে।

মিডিয়া রিপোর্টস অনুযায়ী, তাইওয়ান চুনের শুখোই বিমানকে ধ্বংস করার জন্য আমেরিকার মিসাইলের ব্যবহার করেছে। যদিও, সেটি কোন মিসাইল ছিল সেটি জানা যায় ন। এই ঘটনার পর চীন আর তাইওয়ানের মধ্যে উত্তেজনা আরও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিচ্ছে। দক্ষিণ চীন সাগরে আমেরিকা চীনকে যোগ্য শিক্ষা দেওয়ার জন্য সম্পূর্ণ ভাবে প্রস্তুত। আমেরিকার অত্যাধুনিক নৌবহর বহুদিন ধরেই দক্ষিণ চীন সাগরে মোতায়েন আছে। আর সেই নৌবহরে ১২০ টি ফাইটার জেটও আছে। আমেরিকা পরিস্কার বুঝিয়ে দিয়েছে যে, দক্ষিণ চীন সাগরে চীনের জারিজুরি চলবে না। আমেরিকা সব ছোট দেশের পাশে দাঁড়িয়ে আছে, আর চীনকে জবাব দিতে প্রস্তুত।

https://twitter.com/NewsLineIFE/status/1301773997407830021

CNN অনুযায়ী, আমেরিকা রবিবার নিজেদের গাইডেড মিসাইল ডেস্ট্রয়ার তাইওয়ানে মোতায়েন করেছে। সবথেকে বড় ব্যাপার হল, আমেরিকা এই মিসাইল মোতায়েন করার জন্য কোন কিছু ঘোষণা করেছিল না। আমেরিকার এই পদক্ষেপে এটা স্পষ্ট যে তাঁরা তাইওয়ানের পাশে আছে আর চীনের সমস্ত দুঃসাহসের জবাব দেওয়া জন্য প্রস্তুত। চীন যদি তাইওয়ানে হামলা করার চেষ্টা করে, তাহলে আমেরিকাও চুপ করে থাকবে না।

Related Articles