নরেন্দ্র মোদী ছোট বেলায় যেই দোকানে চা বেচতেন, সেটিকে পর্যটন কেন্দ্র বানানোর সিদ্ধান্ত নিলো কেন্দ্র সরকার

মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ছোট বেলা থেকে বডনগরের রেলওয়ে স্টেশনে চা বিক্রি করতেন। এবার সেই চায়ের দোকানকেই পর্যটন কেন্দ্র বানানোর পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। কেন্দ্রীয় পর্যটন আর সংস্কৃতি মন্ত্রী প্রহ্লাদ সিং  প্যাটেল কিছুদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর গ্রামে গেছিলেন। আর সেখানে পর্যটনকে উৎসাহ দেওয়ার জন্য সেই যায়গা গুলোকে চিহ্নিত করেন। এই পর্যটন কেন্দ্র গুলোকে আগামী সময়ে উন্নত করা হবে।

প্রহ্লাদ প্যাটেল বডনগর রেলওয়ে স্টেশনে গেছিলেন। স্টেশনের একটি প্ল্যাটফর্মে থাকা দোকানের বিষয়ে বলা হয় যে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ছোট বেলায় ওই দোকানে চা বেচতেন। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজেই এই ব্যাপারে অনেকবার কথা বলেছেন। লোকসভা নির্বাচন ২০১৪ এ কংগ্রেস নেতা মনিশঙ্কর আইয়ার বিজেপি আর প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদীকে এই নিয়ে কটাক্ষ করেছিলেন।

মনিশঙ্কর আইয়ার তখন বলেছিলেন, নরেন্দ্র মোদী কখনই দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে পারবে না। যদি তিনি চান, তাহলে তিনি এআইসিসি অধিবেশনে চা বেচতে পারেন। আবার তিনি নরেন্দ্র মোদীর জন্য চায়ের দোকান খুলে দেওয়ার কথাও বলেছিলেন। মনিশঙ্কর আইয়ারের এই বয়ানের পর নরেন্দ্র মোদী আর বিজেপি এটি নিয়ে বড় ইস্যু বানায়। নরেন্দ্র মোদী তখন সবার সামনে বলেছিলেন যে, তিনি স্টেশনে চা বেচতেন। বিজেপি এরপর চায় পে চর্চা অভিযান শুরু করে।

পর্যটন মন্ত্রী প্রহ্লাদ প্যাটেল বডনগর রেলওয়ে স্টেশনে গিয়ে সেই দোকানটি দেখেন। টিনের তৈরি এই দোকানে অনেকটাই এখন জং ধরে গেছে। আর এটিকে সংরক্ষণ করার জন্য প্রহ্লাদ প্যাটেল আধিকারিকদের দোকানটিকে সম্পূর্ণ কাঁচ দিয়ে ঢেকে দেওয়ার কথা বলেন। উনি নির্দেশ দেন যে, দোকানের বর্তমান পরিস্থিতি যেন বজায় থাকে। প্যাটেল বডনগর এর অন্যান্য ঐতিহাসিক আর ধার্মিক স্থান গুলোকেও ঘুরে দেখেন। সেখানে ২৭০০ বছরের পুরনো ঐতিহাসিক স্থাপত্যকে আগলে রাখা হয়েছে।

 

Related Articles