কথা রাখলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। উদ্ধারিত কালোটাকা ঢুকছে গরিব গ্রামবাসীদের আকাউন্টে।

এই মুহূর্তে পুরো বাংলা জুড়ে পালিত হচ্ছে সরস্বতী পূজা। বাংলার প্রতিটি গ্রাম শহর মেতে রয়েছেন বিদ্যার দেবী সরস্বতীর আরাধনায়। আর এমনই দিনে মেদিনীপুর জেলার এগড়া গ্রামে যখন সরস্বতী পুজোয় মেতেছেন গ্রামবাসী ঠিক সেই সময় তাদের একাউন্টে ঢুকেছে একের পর এক টাকা অর্থাৎ সরস্বতী পুজোর দিন তাদের কাছে এসে ধরা দিয়েছেন স্বয়ং লক্ষ্মী। আর তাদের ব্যাংকে এত টাকা একবারে ঢুকে যাওয়ায় তারা সত্যিই আতঙ্কিত দেখা গিয়েছে কারুর ব্যাংকে ৫০০০ তো কারুর ১০০০০ থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ২৫০০০ পর্যন্ত টাকা ঢুকেছে। সেই টাকা ঢোকার পরে সেইসব টাকা তোলার জন্য লাইন পড়ে গেছে ব্যাংক গুলি তে। কিন্তু কোথা থেকে টাকা আসছে সেই নিয়ে আতঙ্কে রয়েছে গ্রামবাসীরা। জানা গিয়েছে এখনো পর্যন্ত মোট ২০০ জনের বেশি একাউন্টে ঢুকেছে এই টাকা।

এছাড়াও পূর্ব বর্ধমান জেলার রায়না গ্রামে অনেক মানুষের একাউন্টে ২০০০ টাকা করে ঢুকে গিয়েছে। কিন্তু সেই টাকা কোথা থেকে এসেছে সেই ব্যাপারে মুখ খোলেনি কোন ব্যাংক আধিকারিক এমনকি তারা মিডিয়ার সামনে কিছু বলতে নারাজ। তবে অনেকের মুখে বলতে শোনা যাচ্ছে যে এটা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পাঠিয়েছেন অর্থাৎ উনি কালো টাকা উদ্ধার করছেন এবং সেই টাকা দেশের গরিবদের ব্যাংক একাউন্টে টাকা ঢুকিয়ে দিচ্ছেন।

তবে টাকা যেখান থেকে আসুক না কেন গ্রামবাসী সেই ব্যাপারে মাথা ঘামাতে নারাজ তাদের কাছে টাকা টাই শেষ কথা। তাই তারা মাথা ঘামায়নি যে টাকা কোথা থেকে আসছে টাকা তাদের ব্যাংক একাউন্টে এসেছে এতেই তারা খুশি। কিন্তু কিছু কিছু গ্রামবাসী আবার ভয় পেয়েছেন কারণ তারা ভাবছেন যে এখন হয়তো টাকা ঢুকেছে পরে সে টাকা সুদ সমেত ফেরত নিয়ে নেওয়া হবে।
#অগ্নিপুত্র