fbpx
আন্তর্জাতিকদেশ

প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ চীনের মিডিয়া, বললেন ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী একজন রকষ্টার।

ভারতের মিত্র দেশের তালিকায় কোনো ভাবেই চীনের নাম থাকে না। আর সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য হল চীন এমন একটা দেশ যে দেশের মিডিয়ার ওপর তাদের সরকারের পুরোপুরি হস্তক্ষেপ রয়েছে অর্থাৎ চীনে কোন এমন মিডিয়া নেই যে স্বাধীনভাবে এবং নিরপেক্ষভাবে খবর প্রচার করতে পারে। চীনের সবকটি মিডিয়ার উপরে তাদের দেশের সরকারের হস্তক্ষেপ রয়েছে উল্লেখযোগ্য ভাবে। অর্থাৎ মিডিয়া যে কোন খবর প্রচার করার আগে চীনের সরকারের কাছে অনুমতি নিতে হয়। চিনের মিডিয়া নিরপেক্ষ এবং নিজের ইচ্ছেমত যে কোন সময় যা কিছু কথা বলতে পারে না। আর এই মুহূর্তে চীনের মিডিয়াগুলোতে ছেয়ে গিয়েছে ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসায় মুখরিত হয়েছে চীনের প্রতিটি মিডিয়া। এটা ঠিক যে শুধু চীনের মিডিয়াই নয় বরং বিশ্বের সমস্ত বড় বড় দেশের মিডিয়াই মোদীর প্রশংসায় মুখরিত হয়েছেন।

তবে চীনের ব্যাপার সত্যিই আলাদা কারণ এই মুহূর্তে ভারত আর চীনের যা পরিস্থিতি তাতে চীন, ভারতের এক প্রকার শত্রু দেশ হিসাবেই পরিচিত হয়ে গিয়েছে আর এমন পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নাম চীনের মিডিয়া করছে এটা সত্যি ভাবাচ্ছে বিশ্বকে। আসলে এই মুহূর্তে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যেভাবে অত্যন্ত দক্ষতা এবং সাহসিকতার সাথে কাজ করে চলেছে তাতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা না করে থাকতে পারছে না চীনের মিডিয়াগুলি। এই মুহূর্তে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে রক স্টার বলে আখ্যা দিয়েছেন চীনের সমস্ত মিডিয়া। চীনের মিডিয়াগুলি প্রধানমন্ত্রীকে রক স্টার আখ্যা দিয়ে জানিয়েছেন যে নরেন্দ্র মোদি হল এমন এক প্রধানমন্ত্রী যিনি অত্যন্ত দক্ষতা এবং সাহসিকতার সাথে কাজ করে সমগ্র বিশ্বের কাছে ভারতবর্ষকে এক অন্য মাত্রায় পৌঁছে দিয়েছেন এবং এই রকম প্রধানমন্ত্রী ভারতবর্ষ এর আগে খুব কম পেয়েছে।

চীনের মিডিয়া মোদীজির প্রশংসা করে বলেছেন নরেন্দ্র মোদী এতটাই দক্ষ একজন নেতা যে পিছিয়ে থাকা ভারতবর্ষকে মাত্র পাঁচ বছরের মধ্যে টেনে তুলে বিশ্বের প্রথম সারির দেশ গুলির সাথে একই সরিতে দাঁড় করিয়েছেন। অর্থাৎ তারা এই চিত্র তুলে ধরেছেন মোদি সরকার যখন দায়িত্বে আসেন সেই সময় ভারত ডিজিপিতে ১১ তম স্থানে ছিল আর এখন মাত্র ৫ বছরের মধ্যে উঠে এসে ভারতবর্ষের স্থান ৬ তম এতেই বোঝা যাচ্ছে যে মোদীজি কতটা দক্ষতার সাথে দেশ পরিচালনা করছেন। আর সেই সাথে চীনের মিডিয়া এটাও তুলে ধরেছেন যে এর আগে ভারতবর্ষে অনেকবার জঙ্গি হামলা হয়েছে, মুম্বাইয়ের মত বড় জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু সেই সময় কংগ্রেস সরকার কোনো বড় পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি জঙ্গিদের বিরুদ্ধে। আর এবার পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পর পাকিস্তানকে একেবারে কোণঠাসা করে দিয়েছে মোদি সরকার।

মোদির কূটনৈতিক চাপে পড়ে একেবারে নাভিশ্বাস হয়ে উঠেছে পাকিস্তান। এতেই প্রমাণ পাওয়া যায় মোদিজির দক্ষতা। সেই সাথে চীনের মিডিয়া দাবি করেছে যে, মোদীজি অত্যন্ত পজিটিভ ভূমিকা পালন করছেন ভারত কে বদলানোর জন্য।
#অগ্নিপুত্র

Close